advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

জার্মানিতে ৩৪ প্রবাসী করোনায় আক্রান্ত

আশরাফুল হক আকাশ,বার্লিন (জার্মানি)
৮ মে ২০২০ ১৩:৩৭ | আপডেট: ৮ মে ২০২০ ১৪:২৯
প্রতীকী ছবি
advertisement

জার্মানিতে আগের তুলনায় করোনাভাইরাস সংক্রমিত কোভিড-১৯ এ আক্রান্তের হার কমেছে। দেশটিতে পর্যায়ক্রমে বিধি-নিষেধেও আনা হচ্ছে শিথিলতা। তবে এর মধ্যেও কোনো কোনো অঙ্গরাজ্যে বেড়েছে করোনার প্রকোপ। দেশটিতে বসবাসরত প্রায় ২০ হাজার বাংলাদেশির মধ্যে করোনায় এখনো কেউ মারা না গেলেও আক্রান্ত হয়েছেন ৩৪ জন।

জার্মানিতে আগে থেকেই ২৫ জন প্রবাসী বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন। এবার নতুন করে আরও নয়জন এ প্রাণঘাতী ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন। নতুন আক্রান্তদের নয়জনই বার্লিনের অধিবাসী। আক্রান্তদের মধ্যে দু-একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এদিকে, কোভিড-১৯ পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় বিধিনিষেধ আরও শিথিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অ্যাঙ্গেলা মের্কেলের সরকার। গত বুধবার জার্মানির ১৬টি অঙ্গরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বর্তমানে সংক্রমণ বিবেচনায় কয়েক দিন আগে নেওয়া বিধিনিষেধ আরও শিথিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আঙ্গেলা মের্কেল। তবে সামাজিক দূরত্ব ও গণপরিবহনে মাস্ক পরিধানসহ অন্যান বিধিনিষেধ বলবৎ থাকবে।

দেশটির বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা বলছেন, শিথিলতা মানেই স্বাভাবিক চলাফেরা নয়, বরং সচেতনতাই পারে সংক্রমণ থেকে বাঁচাতে। আর স্বাস্থ্যবিধি না মানলেই আসতে পারে করোনা মহামারির দ্বিতীয় ধাপ। আর সেটা হবে ভয়াবহ।

মের্কেল সরকারের গ্রহন করা শিথিলতার সিদ্ধান্তের কারণে জার্মানির অর্থনীতি আবারও ঘুরে দাঁড়াবে বলে অভিমত অর্থনীতিবিদদের। তবে যতদিন প্রতিষেধক টিকা তৈরি না হবে ততদিন পর্যন্ত সংকট থাকারও সম্ভাবনা দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

যুক্তরাষ্ট্রের জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের মতে, এখন পর্যন্ত জার্মানিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৬৯ হাজার ৪৩০ জন। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশটির ৭ হাজার ৩৯২ জন মারা গেছে।

advertisement
Evall
advertisement