advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে ভেষজ চা

অনলাইন ডেস্ক
৮ মে ২০২০ ১৭:২৫ | আপডেট: ৮ মে ২০২০ ১৮:১৫
নানা ধরণের ভেষজ চা হতে পারে রোগ প্রতিরোধ তথা করোনাভাইরাস প্রতিরোধের সহায়ক
advertisement

করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করা খুব জরুরি। আর এ ক্রান্তিলগ্নে ভেষজ চা হতে পারে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করার সঠিক উপাদান।

বার্তা সংস্থা ইউএনবি জানিয়েছে, কয়েকটি ভেষজ চায়ের কথা। চলুন জেনে নেই রোগ প্রতিরোধক এসব চা সম্পর্কে-

গ্রিন টি : গ্রিন টি ক্যাফেইনের একটি দুর্দান্ত উৎস, যা শক্তি সরবরাহ করতে পারে। গ্রিন টি বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন এবং খনিজ পদার্থে ভরপুর। এতে থাকা পটাসিয়াম, আয়রন, ক্যালসিয়াম, প্রোটিন, ভিটামিন সি এবং ভিটামিন এ স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য খুবই প্রয়োজনীয়।

এগুলো ছাড়াও, গ্রিন টিতে রয়েছে ক্যাটচিনস, পলিস্যাকারাইডস, ফ্যাটি অ্যাসিড, এসেনশিয়াল অয়েল, ফ্ল্যাভানলস, ক্লোরোফিল এবং আরও অনেক ভেষজ উপাদান। এসব উপাদানের কারণে গ্রিন টি বিভিন্ন ধরনের অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি, অ্যান্টি অক্সিড্যান্ট এবং অ্যান্টি-এনজাইমেটিকে ভরপুর। অক্সিডেটিভ স্ট্রেস এবং অটোইমিউন প্রতিরোধ করে গ্রিন টি আমাদের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা শক্তিশালী করতে পারে।

যেভাবে গ্রিন টি প্রস্তুত করবেন

দুই কাপ পানি অন্তত ১০ মিনিট ধরে ফুটিয়ে নিন। ফুটন্ত পানিতে একটি টি ব্যাগ বা এক চা চামচ গ্রিন টি দিন।এটি পানিতে ৩-৫ মিনিটের জন্য রাখুন। এরপর টি ব্যাগটি সরিয়ে ফেলুন। বাড়তি স্বাদের জন্য আপনি গ্রিন টি’তে ১ চামচ লেবুর রস বা ১ চামচ মধু যোগ করতে পারেন।

হলুদ চা : হলুদ আমাদের রান্নায় একটি অতি প্রয়োজনীয় মসলা। মসলা ছাড়াও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে চা আকারে হলুদ খাওয়া যেতে পারে। হলুদে প্রচুর পরিমাণে কার্কিউমিন রয়েছে, যা একটি প্রদাহ বিরোধী উপাদান হিসেবে কাজ করে। কার্কিউমিন আপনার শরীরের প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে বিভিন্ন ভাইরাস বিশেষত ফ্লু থেকে প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারে। একটি শক্তিশালী অ্যান্টি অক্সিড্যান্ট হিসেবে হলুদে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা আপনার স্নায়ুকে প্রশান্ত করতে পারে। এটি শরীরের কোষকে ভেতর থেকে নিরাময় করতে পারে।

হলুদে রক্তের শর্করার মাত্রা হ্রাস করার মতো আরও অনেক সুবিধা রয়েছে, যা টাইপ-২ ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করতে পারে। কিছু গবেষণায় দেখা গেছে যে, হলুদ শরীরের ‘খারাপ’ কোলেস্টেরল হ্রাস করতে পারে, যা হৃদযন্ত্রের সুরক্ষা দিতে পারে।

যেভাবে হলুদ চা প্রস্তুত করবেন

২ কাপ পানিতে ২ চামচ হলুদ মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটিতে আপনি ১ চামচ আদা, এক চিমটি মরিচ গুঁড়া, ১ চামচ দারুচিনি গুঁড়া, এক চিমটি লবঙ্গ এবং এক চিমটি জায়ফলের মতো কিছু মশলা দিতে পারেন। এই মিশ্রণটি ১০ মিনিটের জন্য ফুটিয়ে নিন। খাওয়ার আগে স্বাদ বাড়াতে ১ চামচ মধুও যোগ করতে পারেন।

লেবু চা : গলাব্যথা, মাথাব্যথা, শরীরব্যথা, নাক বন্ধ হয়ে যাওয়া ইত্যাদি ঠান্ডাজনিত অসুস্থতায় লেবু চা হতে পারে কার্যকরী সমাধান।এ ছাড়া ব্যথা এবং প্রদাহ হ্রাস, রক্তচাপ হ্রাস, রক্তনালীগুলোর কার্যকারিতা বৃদ্ধি, হজম শক্তি বৃদ্ধিসহ বিভিন্নভাবে সহায়তা করে লেবু চা।

সাধারণ সর্দি, ফ্লু, এইচ১এন১ (সোয়াইন) ফ্লু, সাইনাস প্রদাহ, পেট খারাপ, বমি বমি ভাব, কিডনিতে পাথর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসাতেও লেবু ব্যবহৃত হয়। সাম্প্রতিক করোনাভাইরাস মহামারি চলাকালীন, চিকিৎসকরা কোভিড-১৯ চিকিৎসার জন্য ভিটামিন-সি ডোজ প্রয়োগ করছেন। কারণ এখনো এ ভাইরাসের অনুমোদিত কোনো ভ্যাকসিন নেই। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা কোভিড-১৯ বা অন্য সংক্রামক রোগ প্রতিরোধে ভিটামিন-সি গ্রহণের পরামর্শ দিচ্ছেন।

যেভাবে লেবু চা প্রস্তুত করবেন

প্রথমে ২ কাপ পানি প্রায় ১০ মিনিটের জন্য ফুটিয়ে নিন। তারপর আঁচে জ্বাল দিন এবং এতে ১ চা চামচ চা পাতা যোগ করুন। চা পাতা কয়েক মিনিটের জন্য ফুটতে দিন। চা পরিবেশনের সময় ২ চামচ লেবুর রস যোগ করুন। অতিরিক্ত স্বাদের জন্য আপনার লেবু চায়ে ১ চামচ মধু যোগ করতে পারেন।

আদা চা : হাঁপানি, সর্দি, কাশি, বমি বমি ভাব, হতাশা ইত্যাদি বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যা নিরাময়ের জন্য ওষুধ হিসেবে আদা দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। আদা কেবল ই.কোলি, শিগেলা ইত্যাদির মতো ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধিই বন্ধ করে না, ভাইরাসের সংক্রমণও রোধ করে। আদায় একটি সক্রিয় যৌগ রয়েছে যা মুখের ব্যাকটেরিয়া থেকে আপনাকে সুরক্ষা দিতে পারে।

আদা আপনাকে ফুসফুসের রোগ, উচ্চ রক্তচাপ, হার্টের সমস্যা ইত্যাদির মতো দীর্ঘস্থায়ী রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সহায়তা করতে পারে। আদা প্রাকৃতিকভাবে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে, যা আপনার দেহের কোষের ডিএনএ কাঠামোর ক্ষতি প্রতিরোধ করে। কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে পান করতে পারেন আদা চা।

যেভাবে আদা চা প্রস্তুত করবেন

২ কাপ পানিতে ১ চা চামচ আদা গুঁড়া বা আদা কুচি যোগ করুন। এবার ফুটন্ত পানিতে ১ চা চামচ ব্লাক টি মিশিয়ে দিন। মিশ্রণটি ১ মিনিট ধরে ফুটিয়ে নিন। পানীয়টি স্বাস্থ্যকর করতে আপনি ১ চামচ লেবুর রস অথবা ১ চামচ মধু যোগ করতে পারেন।

advertisement
Evall
advertisement