advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ফেসবুকে ক্ষোভ ঝাড়লেন অপূর্ব

বিনোদন ডেস্ক
১৮ মে ২০২০ ০২:৫০ | আপডেট: ১৮ মে ২০২০ ০৯:০৪
ছবি : ফেসবুক থেকে নেওয়া
advertisement

ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বর সংসার ভেঙে গেছে। স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতির সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে তার। বনিবনা না হওয়ায় ৯ বছরের দাম্পত্য জীবনের বিচ্ছেদ হলো দুজনের। এ খবর নিশ্চিত করেছেন নাজিয়া হাসান অদিতি নিজেই।

গতকাল রোববার বিকেলে মুঠোফোনে নাজিয়া বলেন, ‘অপূর্বের সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে, এটা সত্য। মানুষের এটা জানা দরকার, জানালাম। এর বেশি কিছুই বলতে চাই না। ব্যক্তিগত বিষয় ব্যক্তিগতই থাকুক।’

এর পরপরই নেটিজেনরা তাকে নিয়ে সমালোচনা শুরু করেন। নাজিয়াকে নিয়েও মন্তব্য করেন অনেকে। এ ছাড়া অপূর্বর জীবনে কোনো (?) এক নারী এসেছেন বলে ৯ বছরের বিয়ে বিচ্ছেদ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন কেউ কেউ। ছোট পর্দার জনপ্রিয় এ অভিনেতার সঙ্গে জড়ানো হয় আরও কিছু নাম।

এ বিষয়টি নিয়ে বেশ বিরক্ত হয়েছেন অপূর্ব। ফেসবুকে বিষয়টি নিয়ে রাগ ঝেড়েছেন তিনি। রোববার দিবাগত রাত ২টায় সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে বিষয়টি নিয়ে একটি পোস্ট করেন অপূর্ব। সেখানে তিনি লেখেন- ‘ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে গসিপ করা এবং তীর্যক, মিথ্যা বানোয়াট মন্তব্য করে তাদের কষ্ট বাড়িয়ে দেওয়ার মতো খারাপ কাজগুলো থেকে সবাই বিরত থাকবেন এবং এর মধ্যে রসালো কোনো গল্প তৈরি করে সংবাদ করার চেষ্টা করবেন না, প্লিজ।

অত্যন্ত সম্মানের সাথে জানাচ্ছি আমি এবং আমার স্ত্রী অদিতি অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ সমাধানের মধ্যদিয়ে আমাদের সম্পর্কের আইনগত ভাবে ইতি টেনেছি। কোনো সংবাদমাধ্যম এই ব্যাপারটাতে তৃতীয় কাউকে জড়িয়ে কোনো ধরনের ভুল সংবাদ প্রকাশ করলে আমি তাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আইনগত ব্যবস্থা নিব। অলরেডি প্রকাশিত কিছু সংবাদের লিংক আমি সংগ্রহ করেছি। এখানে আরও উল্লেখ্য আমি অদিতিকে সম্মান করি এবং আজীবন করবো। সুতরাং কোনোভাবেই অদিতিকে অসম্মান করে তার পাশে অন্য কারও নাম আমি সহ্য করবো না। ভুলে যাবেন না অদিতি এখন আইনগত ভাবে আমার স্ত্রী না থাকলেও সে আমার সন্তানের মা।’

অপূর্ব-নাজিয়ার ছেলের নাম আয়াশ। সে কার কাছে আছে জানতে চাইলে বিষয়টি এড়িয়ে যান অদিতি। তাদের একটি ঘনিষ্ঠসূত্র জানিয়েছে, চলতি বছরের প্রথমদিকে তাদের বিচ্ছেদ ঘটে।

এদিকে নাজিয়া ফেসবুকেও বিষয়টি জানান দিয়েছেন। তার প্রোফাইলে রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস বারে ‘ডিভোর্সড’ উল্লেখ করা হয়েছে। এ ছাড়া একটি পোস্টও দিয়েছেন তিনি যেখানে লেখা- আমাকে ‘ভাবী’ ডাকা বন্ধ করুন সবাই!

ডিভোর্সের ব্যাপারে জানতে অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বর মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও যোগযোগ সম্ভব হয়নি।

এর আগে ২০১০ সালের ১৯ আগস্ট অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাকে বিয়ে করেছিলেন অপূর্ব। যদিও এর পরের বছরের ফেব্রুয়ারিতেই তাদের ডিভোর্স হয়। একই বছরের ১৪ জুলাই অপূর্ব পারিবারিকভাবে নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন।

advertisement
Evall
advertisement