advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ক্ষুধার জ্বালা মেটাতে মরা কুকুরের মাংস খাচ্ছে মানুষ!

অনলাইন ডেস্ক
২২ মে ২০২০ ১২:৫২ | আপডেট: ২২ মে ২০২০ ১৪:১২
মৃত কুকুরের মাংস খাচ্ছেন ভারতের এক নাগরিক। ভিডিও থেকে ধারণকৃত
advertisement

করোনাভাইরাস ঠেকাতে ভারতজুড়ে চলমান লাকডাউনের ফলে কর্মহীন হয়ে পড়েছেন দেশটির দরিদ্র মানুষ। এ অবস্থায় দেশটির দিনমজুর ও শ্রমিক শ্রেণির মানুষের খাদ্য জোগান করাই মুশকিল হয়ে পড়েছে।  

এবার সামনে এলো আরও ভয়ঙ্কর চিত্র। ক্ষুধার জ্বালা মেটাতে দিনে ভর দুপুরে রাস্তায় বসে মরা কুকুরের মাংস খাচ্ছে একজন। এই ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

শ্রমিকরা হাঁটছেন কয়েক হাজার কিলোমিটার, রাস্তাতেই মারা যাচ্ছেন দুর্ঘটনা বা ক্লান্তিতে। রাজনীতিও চলছে সমানতালে সেই মৃত্যু নিয়ে।

ভারতের সংবাদমাধ্যম এই সময়ের প্রতিবেদনে বলা হয়, ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দিল্লি-জয়পুর হাইওয়েতে।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, হাইওয়েতে বসে আছেন এক ব্যক্তি। তার সামনে পড়ে রয়েছে একটি মরা কুকুর। আর সেই মৃত কুকুরের শরীর থেকে মাংস ছিঁড়ে খাচ্ছেন তিনি। বেশ কিছুক্ষণ খাওয়ার পর একজন একটি গাড়ি থেকে নেমে এসে ওই ব্যক্তিকে একটি খাবারের প্যাকেট ও জলের বোতল দিয়ে যান।

এই ভিডিও সামনে আসতেই ভারতে আবার আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে। অভিযোগ উঠছে, দেশের পরিযায়ী শ্রমিক ও এসব দরিদ্র মানুষের জন্য কোনো ব্যবস্থা না করেই লকডাউন করেছে মোদি সরকার। যার ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে এসব অসহায় মানুষগুলো।

সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশে না খেতে পেয়ে মারা গেছেন ৬০ বছর বয়সী এক পরিযায়ী শ্রমিক।

এর আগে, ক্ষুধার জ্বালা মেটাতে গাছের পাতা ছিঁড়ে খেয়েছিলেন কলকাতায় আটকে পড়া এক পরযায়ী শ্রমিক। দিন কয়েক আগেই ওই শ্রমিকের গাছের পাতা ছিঁড়ে খাওয়ার ছবি প্রকাশিত হয়েছে ভারতের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে।

ভারতে লকডাউনের জেরে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন এসব পরযায়ী শ্রমিকরা। তাদের ঘরে ফেরাতে তেমন কোনও উদ্যোগ নেয়নি সরকার। এ নিয়ে পরস্পরকে দোষারোপ করে চলেছে দেশটির কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারগুলো।

advertisement
Evall
advertisement