advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বিদ্যুৎ বিল কম-বেশি হওয়া নিয়ে যে ব্যাখ্যা দিলো বিদ্যুৎ বিভাগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৩ মে ২০২০ ১৯:১৫ | আপডেট: ২৩ মে ২০২০ ২২:২৮
advertisement

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের বিদ্যুৎ বিল নিয়ে কোনো কোনো গ্রাহকের মধ্যে কিছু বিভ্রান্তি দেখা দিয়েছে। বিভ্রান্তি দূর করতে আজ শনিবার একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে বিদ্যুৎ বিভাগ।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সম্মানিত বিদ্যুৎ গ্রাহকদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, মহামারি করোনার বিস্তার রোধে বর্তমানে অনেক গ্রাহকের আঙিনায় সরেজমিনে গিয়ে মিটার রিডিং গ্রহণপূর্বক বিদ্যুৎ বিল প্রস্তুত করা হচ্ছে না। দেশের বিভিন্ন এলাকায় লকডাউন ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার বাধ্যবাধকতার ফলে গ্রাহক ও বিদ্যুৎ কর্মীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা বিবেচনা করে সংশ্লিষ্ট এলাকার বিদ্যুৎ গ্রাহকদের আগের মাসের অথবা পূর্ববর্তী বছরের একই সময়ের বিলের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে প্রাক্কলিত বিল প্রদান করা হচ্ছে।

এতে বলা হয়েছে, প্রাক্কলিত বিলের সঙ্গে গ্রাহকের প্রকৃত বিদ্যুৎ ব্যবহারের পরিমাণ কম/বেশি অথবা কোনো অসামঞ্জস্য পরিলক্ষিত হলে পরবর্তী মাসের বিলের সঙ্গে তা সমন্বয় করা হবে। কোনো অবস্থাতেই ব্যবহৃত বিদ্যুতের বেশি বিল গ্রাহককে পরিশোধ করতে হবে না। সরকার ইতিমধ্যে করোনা সংক্রমণ বিস্তার রোধে গ্রাহকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা বিবেচনা করে ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি, মার্চ ও এপ্রিল মাসের বিদ্যুৎ বিলের বিলম্ব মাসুল মওকুফ করেছে। ফলে কোনো প্রকার বিলম্ব মাসুল ছাড়াই ফেব্রুয়ারি, মার্চ ও এপ্রিলের বিল আগামী ৩০ জুনের মধ্যে পরিশোধ করা যাবে।

বিদ্যুৎ বিল নিয়ে কারও জিজ্ঞাসা/অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জানাতে বলা হয়েছে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে। এ ছাড়া ব্যাংকে বিল পরিশোধের পাশাপাশি সুবিধা অনুযায়ী বিকাশ/নিজস্ব বুথ/মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের জন্য গ্রাহকদের অনুরোধ করা হয়েছে।

advertisement
Evaly
advertisement