advertisement
advertisement

দুই সতীনের ঝগড়া থামাতে গিয়ে প্রাণ গেল ভাসুরের

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি
২৮ মে ২০২০ ১৬:১০ | আপডেট: ২৮ মে ২০২০ ১৬:১০
advertisement

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে ছোট ভাইয়ের দুই বউয়ের ঝগড়া থামাতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছেন বড় ভাই রোয়াব আলী (৪৮)। গতকাল বুধবার রাতে উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের নাদামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

এলাকাবাসী সূত্র জানায়, নাদামপুর গ্রামের আব্দুর রউফ এর ছেলে নাছির উদ্দিনের দুই স্ত্রী ফরিনা বেগম ও মোমিনা বেগমের মধ্যে বুধবার রাত ৮টার দিকে ঝগড়া লাগে। ঝগড়া থামাতে এগিয়ে যান নাছির উদ্দিনের বড় ভাই রোয়াব আলী। এ সময় তিনি আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন।

পরে তাৎক্ষণিকভাবে স্বজনরা তাকে জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের দায়িত্বে থাকা চিকিৎসা কর্মকর্তা উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মোবারক হোসেন জানান, ওই ব্যক্তি হাসপাতালে পৌঁছার আগেই মারা যান। তার ডান হাতের মধ্য দুটি আগুলে আঘাতের চিহৃ রয়েছে।

নিহতের স্ত্রী খাদিজা বেগম জানান, ‘দুই সতীনের ঝগড়া থামাতে গিয়ে তাদের একজনের আঘাতে আমার স্বামী মারা গেছেন। আমার স্বামীর বুকে ও হাতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।’

‘ময়নাতদন্তের পর লাশ দাফন শেষে মামলা দায়ের করব। এ ব্যাপারে পাঁচজনকে অভিযুক্ত করে আমি থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি’ বলে জানান খাদিজা বেগম।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, লাশের শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন নেই। হাতের আঙুলে সামান্য আঘাত ছিল। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়া গেলে এ বিষয়ে পরবর্তী আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

advertisement