advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সর্বোচ্চ পরীক্ষার দিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত : ২৫২৩
ঘণ্টায় আক্রান্ত ১০৫

নিজস্ব প্রতিবেদক
৩০ মে ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৩০ মে ২০২০ ০০:২৭
advertisement

দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ২ হাজার ৫২৩ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। অর্থাৎ প্রতিঘণ্টায় আক্রান্ত হচ্ছেন ১০৫ জন। ৮ মার্চ করোনা শনাক্তে পর ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের ক্ষেত্রে এটি সর্বোচ্চ রেকর্ড। দেশে এখন পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ৪২ হাজার ৮৪৪ জন। ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ২৩ জন। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৫৮২ জনে। এ সময়ে সুস্থ হয়েছেন ৫৯০ জন। মোট সুস্থ হলেন ৯ হাজার ১৫ জন।

গতকাল শুক্রবার দুপুর কোভিড-১৯ সম্পর্কিত সার্বিক পরিস্থিতি জানাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে প্রতিষ্ঠানটির অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এসব তথ্য জানান।

ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১২ হাজার ৯৮২টি, পরীক্ষা করা হয় ১১ হাজার ৩০১টি। এসব নমুনা পরীক্ষায় ২ হাজার ৫২৩ জনের করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৮৭ হাজার ৬৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এসব পরীক্ষায় ৪২ হাজার ৮৪৪ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় পরীক্ষায় শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৩৩ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ২১ দশমিক ৪ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩৬ শতাংশ।

অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, ২৪ ঘণ্টায় ২৩ জন মারা গেছেন। মৃতদের মধ্যে ১৯ জন পুরুষ এবং ৪ জন নারী। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১০, চট্টগ্রামে ৯, রংপুরে ২, বরিশালে ১ এবং সিলেটে ১ জন রয়েছেন।

বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন, ২১ বছর থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৫ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৫ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ৬ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ২ জন এবং ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন।

অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ৩২৮ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে

আছেন ৫ হাজার ১৪০ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৭২ জন। এখন পর্যন্ত মোট ছাড়া পেয়েছেন ২ হাজার ৮১০ জন।

২৪ ঘণ্টায় প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারেন্টিন মিলে কোয়ারেন্টিনে নেওয়া হয়েছে ৪ হাজার ৯০০ জনকে। এখন পর্যন্ত মোট ২ লাখ ৮০ হাজার ৫ জনকে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় ছাড়া পেয়েছেন ২ হাজার ৯১৮ জন। বর্তমানে মোট কোয়ারেন্টিনে আছেন ৬০ হাজার ২৭৫ জন।

advertisement