advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চ যাতায়াতের সর্বাত্মক চেষ্টা চলবে : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি
৩১ মে ২০২০ ১৮:২৭ | আপডেট: ৩১ মে ২০২০ ১৯:২০
সদরঘাটে অভ্যন্তরীণ নৌযান-লঞ্চ চলাচল ও যাত্রী সুরক্ষার সার্বিক প্রস্তুতি পর্যবেক্ষণ করেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি। ছবি : আমাদের সময়
advertisement

জনসাধারণের চলাচলে শিথিলতা তুলে নিলেও নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী (এমপি) কোনো কাজ ছাড়া মানুষজনকে ঢাকামুখী না হওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। আজ রোববার ঢাকা সদরঘাটে অভ্যন্তরীণ নৌযান-লঞ্চ চলাচল ও যাত্রী সুরক্ষার সার্বিক প্রস্তুতি পর্যবেক্ষণকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চে যাতায়াতে সর্বাত্মক চেষ্টা করার কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘কোনো ধরনের কার্যক্রম না থাকলে কারও যেন স্থানান্তর না হয়, কাজ না থাকলে ঢাকামুখী হওয়ার দরকার নেই। আপনাদের-আমাদের সকলের করোনা ঝুঁকি রয়েছে। ঢাকা সদরঘাটে ‘জীবাণুনাশক টানেল’ বসানো হয়েছে, শুধু ঢাকা সদরঘাট নয়, অন্যান্য বন্দরেও এ ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী আরও বলেন, ‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চে যাত্রী চলাচলে সর্বাত্মক চেষ্টা করব। নির্দেশনা মানতে সচেতনতা বাড়াতে হবে। লঞ্চ মালিক ও শ্রমিকদেরকে এ বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। করোনা আমাদের ভয় নয়; সচেতনতার মাধ্যমেই আমাদেরকে করোনা জয় করতে হবে।’

নৌ প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে এই অনুষ্ঠানে এসময় বিআইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক, বিআইডব্লিউটিসি চেয়ারম্যান খাজা মিয়া এবং নৌপরিবহন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কমোডর সৈয়দ আরিফুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিমন্ত্রী সেখানে জীবাণুনাশক টানেল উদ্বোধন করেন এবং লঞ্চে যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলেন। লঞ্চের ডেকের যাত্রীদের জন্য মার্কিং করা হয়েছে। তিনি যাত্রীদেরকে মার্কিং অনুযায়ী বসার অনুরোধ করেন। লঞ্চেও হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রয়েছে।

ঢাকা সদরঘাটে ছয়টি ‘জীবাণুনাশক টানেল’ বসানো হয়েছে। পর্যায়ক্রমে ১৪টি জীবণুনাশক টানেল বসানো হবে। আজ দুপুর পর্যন্ত স্বাস্থ্য ও নৌবিধি মেনে ঢাকা সদরঘাট থেকে চাঁদপুর, মুন্সিগঞ্জসহ বিভিন্ন রুটে ১৩টি লঞ্চ ছেড়ে গেছে। দুপুরের পর থেকে রাত পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলের লঞ্চগুলো ছেড়ে যাবে।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের সিদ্ধান্তের আলোকে অভ্যন্তরীণ নৌযান/লঞ্চ চলাচলের বিষয়টি নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন করছে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় পরামর্শক কমিটি ও জাতীয় কমিটি রয়েছে। তাদের পরামর্শ ও সুপারিশগুলো আমরা বাস্তবায়ন করছি।’

advertisement