advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মাস্কের বিকল্প হিসেবে নেকাব পরার অনুমোদন

অনলাইন ডেস্ক
১ জুন ২০২০ ১৮:৫৭ | আপডেট: ১ জুন ২০২০ ১৮:৫৭
নেকাব ও শেমাগ পরা সৌদি আরবের নাগরিক। প্রতীকী ছবি
advertisement

করোনাভাইরাস ঠেকাতে মাস্কের বিকল্প হিসেবে নেকাব পরার অনুমোদন দিয়েছে সৌদি আরব। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণাণয়ের হেলথ কল সেন্টার এক টুইট বার্তায় বিষয়টি নিশ্চিত করে।

টুইটের বরাত দিয়ে আজ সোমবার সংবাদমাধ্যম সৌদি গেজেট জানায়, নারীদের জন্য নেকাব  ও পুরুষদের জন্য শেমাগ (এক ধরনের পাগড়ি) মাস্কের বিকল্প হিসেবে গণ্য হবে। এগুলো পরার সময় অবশ্য এটি দিয়ে নাক, মুখ ভালোভাবে ঢেকে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে সৌদি হেলথ কল সেন্টার কর্তৃপক্ষ।

একজন টুইটার ব্যবহারকারী প্রশ্ন করেছিলেন, মাস্কের বদলে শেমাগ দিয়ে নাক-মুখ ঢাকা কী যথেষ্ট নয়? পরে এক টুইটে এ বিষয়ে নিজেদের অবস্থান জানায়  কর্তৃপক্ষ।

ধারণা করা হচ্ছে, মাস্কের বিকল্প হিসেবে নেকাব বা শেমাগ পরার অনুমোদন সৌদি আরবের নাগরিকদের স্বস্তি দেবে। কেননা, করোনার এই সময়ে মাস্ক খুব সহজলভ্য নয়। অনেকের কাছে ব্যক্তিগত সংগ্রহে থাকা মাস্কও শেষ হতে বসেছে।

উল্লেখ্য, শেমাগ মূলত এক ধরনের আরব শাল, যা সাধারণত শিরস্ত্রাণ হিসেবে ব্যবহার করা হয়। আর মুসলিম নারীরা পর্দা হিসেবে মুখ ঢাকতে নেকাব পরে থাকেন।

 

advertisement