advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সানচোর উদযাপনে ‘জর্জ ফ্লয়েড’

ক্রীড়া ডেস্ক
২ জুন ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১ জুন ২০২০ ২৩:৫৩
advertisement

বুন্দেসলিগা ফেরার পর টানা ৩ ম্যাচেই সাইডবেঞ্চে ছিলেন জেডন সানচো। একাদশে ফিরে করলেন হ্যাটট্রিক। তাতে পাডেরবর্নকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে মিটমিট করে জ্বলতে থাকা শিরোপা স্বপ্ন টিকিয়ে রেখেছে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। লিগের ৫ ম্যাচ বাকি থাকতে শীর্ষে থাকা বায়ার্ন মিউনিখের সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান আবার ৭-এ নামিয়ে এনেছে তারা। তবে বুন্দেসলিগায় রবিবার সব আলো কেড়েছে সানচো, মার্কাস থুরামদের গোল উদযাপন। জর্জ ফ্লয়েড হত্যার বিচার চেয়ে গোল উদযাপন করেছেন তারা নিজ নিজ ম্যাচে।

২৫ মে যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়ার পর জর্জ ফ্লয়েড নিহত হন। শ্বেতাঙ্গ পুলিশের নির্যাতনে কৃষ্ণাঙ্গ ফ্লয়েড নিহত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়ার পর প্রায় দেশজুড়েই বিক্ষোভ শুরু হয় যুক্তরাষ্ট্রে সানচো, হাকিমিরাও গোল উদযাপন করে আদতে সেই প্রতিবাদেই যোগ দিয়েছেন জার্মানি থেকে। প্রথম গোলের পর জার্সি খুলে উদযাপন করেছেন সানচো, নিচের টি-শার্টে লেখা ‘জাস্টিস ফর জর্জ ফ্লয়েড’ দিয়েই বার্তা দিতে চেয়েছিলেন তিনি। সানচোর মতো গোলের পর একই কাজ করেছেন আশরাফ হাকিমিও।

প্রথমার্ধ পযর্ন্ত গোলপোস্ট অক্ষত রেখেছিল পাডেরবর্ন। তবে দ্বিতীয়ার্ধে তা আর সম্ভব হয়নি বুন্দেসলিগা পয়েন্ট তালিকার একেবারে তলানিতে থাকা ক্লাবটির। ৫৪তম মিনিটে থোরগান হ্যাজার্ডের গোলে এগিয়ে যায় ডর্টমুন্ড। এর ৩ মিনিট পরেই প্রথম গোলের দেখা পান সানচো। ইংলিশ মিডফিল্ডার পরের গোল দুটি করেন ৭৪ ও ম্যাচের যোগ করা প্রথম মিনিটে। ডর্টমুন্ডের হয়ে ৮৫তম মিনিটে আশরাফ হাকিমি এবং ৮৯ মিনিটে মার্সেল স্মেলজার বাকি গোল দুটি করেন। প্যাডারবোর্ন একমাত্র গোলটি পরিশোধ করে পেনাল্টি থেকে। ব্রায়ান স্টেইনের পরে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের বাইরে একমাত্র ইংলিশ তারকা হিসেবে ইউরোপের শীর্ষ লিগে হ্যাটট্রিক করলেন সানচো। মজার বিষয় হচ্ছে, ৩১ বছর আগে ঠিক আজকের এই দিনে ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে হ্যাটট্রিক করেছিলেন স্টেইন।

২০ বছর বয়সী সানচো তার ক্যারিয়ারের প্রথম হ্যাটট্রিকের পাশাপাশি ইউরোপের শীর্ষ লিগে ১৫ গোল ও ১৫ অ্যাসিস্ট করলেন। ইংলিশ তারকাদের মধ্যে এ কীর্তি আছে কেবল সাবেক সাউদাম্পটন মিডফিল্ডাপর ম্যাট লে টিসির।

বিশাল ব্যবধানের এ জয়ে ২৯ ম্যাচে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থান ধরে রেখেছে ডর্টমুন্ড। সমান ম্যাচে তাদের চেয়ে ৭ পয়েন্ট এগিয়ে থেকে শীর্ষস্থানে বায়ার্ন মিউনিখ।

এর আগে বুন্দেসলিগার অন্য ম্যাচে বরুশিয়া মনশেনগ্লাডবাখ বড় জয় পেয়েছে। ইউনিয়ন বার্লিনকে ৪-১ গোলে হারানোর ম্যাচে মার্কাস থুরাম করেছেন জোড়া গোল। তিনিও গোল উদযাপন করেছেন ফ্লয়েড নিহত হওয়ার বিচার চেয়ে। গোলের পর মাঠে হাঁটু গেড়ে মার্কাস করেছেন প্রতিবাদী গোল উদযাপন। মার্কাসের বাবা লিলিয়ান থুরাম ১৯৯৮ সালে বিশ্বকাপজয়ী ফ্রান্স দলের সদস্য। বর্ণবাদবিরোধী অ্যাক্টিভিস্ট ও ইউনিসেফের হয়ে এখন কাজ করছেন লিলিয়ান থুরাম।

advertisement