advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

খাদ্য উৎপাদন আরও বাড়াতে হবে : কৃষিমন্ত্রী

২ জুন ২০২০ ০৩:২১
আপডেট: ২ জুন ২০২০ ০৩:২১
advertisement


করোনার কারণে সম্ভাব্য খাদ্য সংকট মোকাবিলা করতে হলে উৎপাদন বাড়াতে হবে। দেশে খাদ্য উৎপাদনে যে অভূতপূর্ব সাফল্য এসেছে, তার ধারা আরও ত্বরান্বিত করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে জানান কৃষিমন্ত্রী মো. আবদুুর রাজ্জাক। গতকাল সরকারি বাসভবন থেকে আমন ও রবিশস্য উৎপাদন বৃদ্ধির বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ও সংস্থাপ্রধানদের সাথে অনলাইন সভায় মন্ত্রী এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, আউশ ও আমনের আবাদ ও উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা বাড়ানো হয়েছে। আউশের জন্য বীজ, সার, সেচসহ বিভিন্ন প্রণোদনা কৃষকের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। আগামীর ফসল আমন ও রবি মৌসুমে যাতে কোনো সংকট তৈরি না হয়, সে জন্য সব ধরনের প্রচেষ্টা চলছে। মন্ত্রী আরও বলেন, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা আশঙ্কা প্রকাশ করেছে যে করোনার কারণে বিশ্বব্যাপী খাদ্য উৎপাদন ব্যাহত হতে পারে। এর ফলে কোনো কোনো দেশে দুর্ভিক্ষও হতে পারে। এটি অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে বিবেচনায় নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বারবার কৃষি উৎপাদন বাড়ানোর নির্দেশ দিচ্ছেন।

 


কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নাসিরুজ্জামানের সঞ্চালনায় সভায় জানানো হয়, ২০২০-২১ অর্থবছরে আমন আবাদের প্রস্তাবিত লক্ষ্যমাত্রা প্রায় ৫৯ লাখ হেক্টর ও উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ১ কোটি ৫৪ লাখ টন চাল। আমন উৎপাদন বাড়ানোর জন্য কম ফলনশীল জাতের আবাদ কমিয়ে আধুনিক/উফশী জাতের সম্প্রসারণ ও হাইব্রিড জাতের এলাকা বাড়ানো হবে। পাশাপাশি রবি ফসল গম, আলু, মিষ্টিআলু, শীতকালীন ভুট্টা, ডাল জাতীয় ফসল, তেলবীজ জাতীয় ফসল, মসলা ও সবজির লক্ষ্যমাত্রাও বাড়ানো হয়েছে।

advertisement