advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মুখোমুখি মেয়র-এমপি
পল্লীনিবাসের ঘটনায় উত্তপ্ত রংপুর

আমাদের সময় ডেস্ক
৪ জুন ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৪ জুন ২০২০ ০১:১২
advertisement

রংপুর-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির যুগ্ম মহাসচিব রাহগীর আল মাহী সাদ এরশাদ এবং পার্টির রংপুর মহানগর সভাপতি সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফার পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন, বিক্ষোভ মিছিলে উত্তাল হয়ে উঠেছে রংপুর।

গতকাল বুধবার দুপুরে পল্লীনিবাসে রাহগীর আল মাহী সাদ সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করে বলেন, ডিও লেটারে (চাহিদাপত্র) স্বাক্ষর না করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে

মতবিনিময় সভায় হট্টগোল করে তাকে ও তার স্ত্রীকে লাঞ্ছিত করা হয়েছে। এ ঘটনায় স্থানীয় নেতাদের ইন্ধন রয়েছে। তিনি আরও জানান, গত ২ জুন সন্ধ্যায় নেতাকর্মীদের নিয়ে বৈঠক করছিলাম। সেখানে ডিও লেটারে স্বাক্ষর না দেওয়ায় তাকে ও তার স্ত্রীকে গালিগালাজ ও ভয়ভীতি দেখানো হয়। অস্ত্র নিয়ে বাসায় হামলা চালিয়ে তার ব্যক্তিগত গাড়ি ও চেয়ারটেবিল ভাঙচুর করা হয়। তিনি নিজের জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, তিনি বিষয়টি দলের চেয়ারম্যান, মহাসচিব ও সংসদের বিরোধীদলীয় নেত্রীসহ সরকারকে অবহিত করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সাদ এরশাদের স্ত্রী মাহিমা সাদ কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, তাকে অশ্লীল ভাষায় গালাগাল দেওয়াসহ জীবননাশের হুমকি দেওয়া হয়েছে। এরশাদের পুত্রবধূ হয়ে রংপুরে তাকে লাঞ্ছিত হতে হবে তা জীবনে কল্পনাও করিনি।

এদিকে পল্লীনিবাসে গত মঙ্গলবার রাতের ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি ও আটক নেতাকে ছেড়ে দিতে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছেন মহানগর সভাপতি মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। গতকাল দুপুরে নগরীর সেন্ট্রাল রোড়ের জাতীয় পার্টি অফিসে পাল্টা সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করেন, বহিরাগত ও ভাড়াটে গু-াদের সঙ্গে নিয়ে রংপুরে রাজনীতি করছেন সাংসদ সাদ এরশাদ। তার লেলিয়ে দেওয়া বাহিনী ২৭ নম্বর ওয়ার্ড জাপার সাধারণ সম্পাদক টিপু সুলতানকে মারধর করেছে। অন্যায়ভাবে তাকে পুলিশে সোপর্দ করে ঘটনা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করছে। সংবাদ সম্মেলন শেষে নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল করে জাপার নেতাকর্মীরা।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের তাজহাট থানার ওসি শেখ রোকনুজ্জামান জানান, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জাপা নেতা টিপু সুলতানকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এখনো লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাতে পল্লীনিবাসে ডিও লেটারে স্বাক্ষর না করায় সাংসদ রাহগির আল মাহি সাদ এরশাদের ওপর হামলার চেষ্টা ও লাঞ্ছিত করার অভিযোগে টিপু সুলতানকে আটক করে পুলিশ। এর প্রতিবাদে নেতাকর্মীরা পল্লীনিবাসের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেন। মধ্যরাত পর্যন্ত চলে বিক্ষোভ। বর্তমানে পল্লীনিবাস এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

advertisement