advertisement
advertisement

কয়েক তরুণের ভাবনা ও সময়ের গল্প

নিজস্ব প্রতিবেদক
৪ জুন ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৪ জুন ২০২০ ০১:৪৬
advertisement

মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে একুশ শতকে বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছে সারাবিশ্ব। এর ভয়াল থাবা থেকে বাদ যায়নি বাংলাদেশও। করোনার এমন সংকটের সময় সরকারের পাশাপাশি সমাজের সর্বস্তর থেকেই সামর্থ্য অনুযায়ী নানা উদ্যোগের দেখা মিলছে আর্তমানবতার সেবায়। তেমনই একটি সংগঠন ‘সময় ফাউন্ডেশন’।

শুরুর গল্পটা জানতে চাইলে ফাউন্ডেশনের পরিচালক সুজিত বলেন, ২০০৯ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ে (এআইইউবি) পড়ার সময় প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় আইলার আঘাতে বিধ্বস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে বিভিন্ন বন্ধু ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সবাই মিলে অর্থ সাহায্য তুলি। পরে সাতক্ষীরার শ্যামনগরে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে সরাসরি জরুরি সাহায্য বিতরণ করি। এভাবেই শুরু হয় আমাদের পথচলা।

এর পর ‘সময় ক্লাব’ নামে একটি সংগঠন গড়ে তোলা হয় সমাজসেবা করার প্রত্যয়ে। তার পর থেকে সংগঠনটি গরিব-দুঃখীদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ, ইফতারি, ঈদের কাপড় এবং বিনামূল্যে দাঁত ও চোখের চিকিৎসা দিয়ে আসছিল। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের পাঠ শেষ করে এই তরুণরাই উপার্জনের একটি অংশ দিয়ে আসছে

এবং প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে গড়ে তুলেছে ‘সময় ফাউন্ডেশন’।

সম্প্রতি করোনা দুর্যোগের সময় ফাউন্ডেশনের সক্রিয় সদস্যরা বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছেন। লকডাউনের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত ২০ হাজারের মতো মানুষের মাঝে বিতরণ করেছেন রান্না করা খাবার। এ ছাড়া ৩ হাজার পরিবারের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় জরুরি খাবারের প্যাকেট। ‘ঈদের আনন্দ ছড়াই, খুশি বাড়াই’Ñ এই সেøাগানে ঈদের দিন ১ হাজার ১০০ মানুষের মাঝে খাবার ও পথশিশুদের মাঝে কাপড় বিতরণ করেছে সময় ফাউন্ডেশন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ফাউন্ডেশনের সভাপতি ইমরান জানান, করোনার এই জটিল পরিস্থিতির কারণে প্রাথমিক পর্যায়ে আমরা সাংগঠনিক কার্যক্রম শুধু ঢাকাকেন্দ্রিক করার কথা ছিল। পরবর্তীতে এটিকে ছড়িয়ে নিয়ে গেছি প্রায় ১৫টি জেলায়। লকডাউন সময়ে মানুষ যাতে ঘরে বসেই জরুরি চিকিৎসা-পরামর্শ পেতে পারে সেজন্য আমরা চালু করেছি ‘সময় টেলিসেবা’ নামে আরেকটি উদ্যোগ। ১৯ অভিজ্ঞ চিকিৎসকের সমন্বয়ে গঠিত এই উদ্যোগ থেকে যে কেউ সেবা নিতে পারছেন একদম বিনামূল্যে।

advertisement