advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সরকারি চাকুরেদের চিকিৎসা কর্মচারী হাসপাতালে

ইউসুফ আরেফিন
৫ জুন ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৫ জুন ২০২০ ০০:১৪
advertisement

করোনা আক্রান্ত সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা রাজধানীর ফুলবাড়িয়া সরকারি কর্মচারী হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হতে পারবেন। আগামীকাল শনিবার থেকে কোভিড-১৬ আক্রান্তদের ভর্তির প্রক্রিয়া শুরু করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও সরকারি কর্মচারী হাসপাতাল সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সূত্র জানায়, বর্তমানে সরকারি কর্মচারী-কর্মকর্তাদের করোনার লক্ষণ দেখা দিলেই তারা পরীক্ষার জন্য সরকারি কর্মচারী হাসপাতালে নমুনা জমা দিতে পারছেন। নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষার বিষয় সমন্বয় করার জন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. দিদারুল আলমকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছি চারটি। এসব কন্ট্রোল রুমে তিনজন চিকিৎসক সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করছেন।

সরকারি কর্মচারী হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. মো. শাহ আলম আমাদের সময়কে জানান, শনিবার আমাদের হাসপাতালটির সক্ষমতা ও সার্বিক বিষয়ে পরিদর্শনে আসবে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের বিশেষজ্ঞ দল। কোভিড-১৯ আক্রান্তদের চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব কিনা তারা তা যাচাই করে দেখবেন। এ ছাড়া এখনো কিছু কাজ বাকি আছে, সেগুলো সম্পন্ন হলেই এখানে সরকারি চাকরিজীবীরা কোভিড ১-এর চিকিৎসার জন্য ভর্তি হতে পারবেন।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কল্যাণ শাখার দায়িত্বে থাকা উপসচিব মোহাম্মদ কামাল হোসেন বলেন, কর্মচারী হাসপাতালের ৬২টি শয্যা করোনা আক্রান্ত সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে। শনিবার থেকেই আনুষ্ঠানিকভাবে রোগী ভর্তির পরিকল্পনা আছে। তবে কিছু কাজ বাকি আছে। সেগুলো শেষ হতে যদি সময় লাগে সেক্ষেত্রে দু-একদিন দেরি হতে পারে।

প্রসঙ্গত, সাবেক রেলওয়ে কর্মচারী হাসপাতালটি ২০১২ সালে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ওই বছরই হাসপাতালটির নাম পরিবর্তন করে সরকারি কর্মচারী হাসপাতাল নামকরণ করা হয়।

করোনা আক্রান্ত বাংলাদেশ পুলিশের সদস্যরা রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতাল, তেজগাঁওয়ের ইমপালস হাসপাতাল, যাত্রাবাড়ীর আসগর আলী হাসপাতাল, বসুন্ধরা ফিল্ড হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে। র‌্যাব সদস্যরা ইস্কাটনে

হলি ফ্যামিলিতে চিকিৎসার সুবিধা পাচ্ছে। আর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যরা সিএমএইচেই চিকিৎসা নিচ্ছে।

করোনায় মারা গেলে সরকারি চাকরিজীবীরা পাবেন ৫০ লাখ টাকা : করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কোনো সরকারি কর্মকর্তা মৃত্যুবরণ করলে তাকে গ্রেড অনুযায়ী ২৫ থেকে ৫০ লাখ টাকা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। আর করোনা আক্রান্ত হলে পাবেন ৫-১০ লাখ টাকা। মাঠ পর্যায়ে কর্মরত চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ যে কেউ সরকারি নির্দেশনা পালন করতে গিয়ে করোনা আক্রান্ত বা মৃত্যুবরণ করলে গ্রেড ভেদে তারা এ টাকা পাবেন।

এপ্রিলের ১ তারিখ থেকে কার্যকর ধরে গত ২৩ এপ্রিল অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। ইতোমধ্যে সরকারি চাকরিজীবীদের কেউ দায়িত্ব পালনকালে করোনায় মৃত্যুবরণ করলে তিনিও একই সুবিধা পাবেন বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়।

এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দেশে করোনা শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৭ হাজার ৫৬৩ জনে। এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৭৮১ জনের। সারাদেশে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন মোট ১২ হাজার ১৬১ জন।

advertisement