advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বিপাকে শ্রীলংকার ক্রীড়ামন্ত্রী

ক্রীড়া ডেস্ক
৩০ জুন ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২৯ জুন ২০২০ ২২:২৫
advertisement

সম্প্রতি ২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপের ফাইনালকে পাতানো বলে দাবি তুলেছিলেন শ্রীলংকার সাবেক ক্রীড়ামন্ত্রী মাহিন্দানান্দা অতুলগামাগে। তিনি বলেছিলেন, ‘২০১১ বিশ্বকাপের ফাইনাল ভারতের কাছে বিক্রি করে দিয়েছে শ্রীলংকা।’ তার এই দাবির বিপক্ষে জোরালো প্রতিবাদ করেন শ্রীলংকার দুই সাবেক ক্রিকেটার কুমার সাঙ্গাকারা ও মাহেলা জয়াবর্ধনে। তার এমন দাবির সপক্ষে প্রমাণও দাবি করেন তারা। তবে এমন দাবির পক্ষে খুব বেশি যুক্তি উপস্থাপন করেননি মাহিন্দানান্দা। শেষ পর্যন্ত জানিয়েছিলেন, ফাইনালের আগে স্কোয়াডে কিছু পরিবর্তন আনা হয়। যেগুলোর ব্যাপারে ক্রীড়া মন্ত্রণালয় থেকে কোনো ধরনের অনুমতি নেওয়া হয়নি।

সানডে টাইমসে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ অভিযোগ তুলে সাবেক ক্রীড়ামন্ত্রী বলেছিলেন, ‘একদম শেষ দিকে গিয়ে হুট করেই শ্রীলংকা থেকে দুইজন ক্রিকেটারকে নিয়ে যাওয়া হয়। ক্রিকেট বোর্ড কিংবা ক্রীড়া মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে কোনো অনুমতিও নেওয়া হয়নি।’ তার এ অভিযোগ আংশিক সত্য। ফাইনালের আগে ইনজুরি সমস্যায় ভুগছিলেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ ও মুত্তিয়া মুরালিধরন। তাই তাদের ব্যাকআপ হিসেবে উড়িয়ে নেওয়া হয় বাঁ-হাতি পেসার চামিন্দা ভাস ও অফস্পিনার সুরজ রান্দিবকে। কিন্তু এ দুজনকে নেয়ার ব্যাপারে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নেওয়া হয়নি, এ অভিযোগ পুরোপুরি মিথ্যা। কেননা ভাস ও রান্দিবকে দলে নেয়ার আগে লংকান ক্রিকেট দলের পক্ষ থেকে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের কাছে ঠিকই চিঠি দিয়ে অনুমতি নেওয়া হয়েছিল। তখনকার ক্রীড়ামন্ত্রী মাহিন্দানন্দার কাছে দুই খেলোয়াড় দলে নেওয়ার অনুমতি চেয়েছে লংকান দল এবং সেখানে অনুমতি দেওয়াও হয়েছে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে। এই তথ্য প্রমাণের পর পুরোপুরি মিথ্যা হয়ে গেছে মাহিন্দনন্দার অভিযোগ।

এখন বরং প্রশ্ন উঠছে তার অবস্থান নিয়েই। যদি ফাইনাল বিক্রির জন্যই সেই দুই খেলোয়াড়কে উড়িয়ে নেওয়া হয়, তা হলে সেটির অনুমতি কেন দিলেন তখনকার ক্রীড়ামন্ত্রী? নিজের অভিযোগে এখন নিজেই ফেঁসে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে মাহিন্দনন্দার। এদিকে সাবেক এই ক্রীড়ামন্ত্রীর ফাইনাল বেচে দেওয়ার অভিযোগ হালকাভাবে নিচ্ছে না শ্রীলংকা সরকার। এরই মধ্যে বর্তমান ক্রীড়ামন্ত্রীকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সেই ফাইনালের ব্যাপারে তদন্ত করতে। এ ছাড়া আইসিসিও ভেবে দেখছে সেই ম্যাচের বিষয়ে নিজেদের তদন্ত করার বিষয়টি।

advertisement
Evaly
advertisement