advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

কয়েকছত্র

৩০ জুন ২০২০ ০০:০০
আপডেট: ৩০ জুন ২০২০ ০০:১৪
advertisement

লকডাউনে জন্ম

লাখো শিশুর

করোনা মহামারীর মধ্যে ফিলিপাইনে প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা মারাত্মক ব্যাহত হয়েছে। এতে জন্মনিরোধক সামগ্রী অপ্রতুল থাকায় কয়েক লাখ শিশু জন্ম নিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে, যা গত দুই দশকে সর্বোচ্চ। করোনা প্রতিরোধে দেশটিতে গত মার্চ মাসে কঠোর লকডাউন জারি করা হয়। এতে যোগাযোগব্যবস্থা প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। রোগী বা স্বাস্থ্যকর্মীরাও অনেকে হাসপাতালে যেতে পারেননি। যোগাযোগ প্রায় বিচ্ছিন্ন হওয়ার কারণে দেশটির নানা এলাকায় জন্মনিরোধক ওষুধের সংকট দেখা দিয়েছে। এ কারণে আগামী বছর স্বাভাবিক শিশু জন্মের পাশাপাশি প্রায় ২ লাখ ১৪ হাজার অতিরিক্ত শিশুর জন্ম হবে দেশটিতে। এতে সব মিলিয়ে আগামী বছর দেশটিতে ১৯ লাখ শিশুর জন্ম হবে, যা গত ২০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। গার্ডিয়ান

সীমান্ত চালু

করোনা ভাইরাসের মহামারীর কারণে ৫ মাস বন্ধ থাকার পর চীনের সঙ্গে বাণিজ্যের জন্য রসুয়াগাড়ি সীমান্তপথ খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নেপাল। নির্মাণ কাজের কাঁচামাল, পানিবিদ্যুৎ কেন্দ্র ও বিমানবন্দর নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহের জন্য এই সীমান্ত খুলে দেওয়া হচ্ছে। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কারণে গত ২৯ জানুয়ারি চীনের সঙ্গে নিজেদের দুটি সীমান্ত টাটোপানি ও রসুয়াগাড়ি বন্ধ করে দিয়েছিল নেপাল। গত ৮ এপ্রিল টাটোপানি সীমান্ত খুলে দেওয়া হয়। এবার রসুয়াগাড়ি সীমান্ত খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। নেপাল-চীনের মধ্যে একটি বিশেষ চুক্তি হয়েছে। সেই চুক্তির পরিপ্রেক্ষিতেই সীমান্ত খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে ঠিক কবে রসুয়াগাড়ি সীমান্ত চালু হবে তা সংবাদমাধ্যম কাঠমান্ডু পোস্টে বলা হয়নি।

বিধিনিষেধ উঠছে

মেক্সিকোর রাজধানী মেক্সিকো সিটিতে করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় জারি করা বিধিনিষেধ গতকাল সোমবার থেকে পর্যায়ক্রমে তুলে নেওয়ার কথা রয়েছে। তবে এর একদিন আগে গত রবিবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে চার হাজার ৫০ জনের শরীরে এ ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। একই সময়ে এ ভাইরাসে ২৬৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ অব্রাডর সোমবার থেকে পর্যায়ক্রমে বিধিনিষেধ প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। মক্সিকোয় এখন পর্যন্ত ২ লাখ ১৬ হাজার ৮৫২ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। আলজাজিরা

এর মধ্যে ২৬ হাজার ৬৪৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। সিএনএন জানিয়েছে, করোনায় মৃতের সংখ্যার হিসাবে বিশ্বে মেক্সিকোর অবস্থান এখন সপ্তম।

advertisement