advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

৭০০ গোলের মাইলফলকে মেসি

স্পোর্টস ডেস্ক
১ জুলাই ২০২০ ১২:২৩ | আপডেট: ১ জুলাই ২০২০ ১২:২৩
বার্সা অধিনায়ক লিওনেল মেসি
advertisement

ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনার জন্য একটি হতাশার রাত। আবারও পয়েন্ট খুইয়ে লিগ শিরোপা প্রায় হাতছাড়া করে ফেলেছে দলটি। তবে এমন দিনে নিজের ক্যারিয়ারের দারুণ এক মাইলফলকে পৌঁছেছেন বার্সা অধিনায়ক লিওনেল মেসি। ৭০০তম গোলের দেখা পেয়েছেন রেকর্ড ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী এ তারকা।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে ম্যাচের ৫০তম মিনিটে স্পটকিক থেকে গোল পান মেসি। ডি-বক্সে নেলসন সেমেদোকে ফাউল করায় পেনাল্টি পেয়েছিল দলটি। দারুণ এক পানেনকা শটে বল জালে জড়ান মেসি। তবে তিনি গোল পেলেও তার দল জয় পায়নি।

এদিন রাতে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে এ মাইলফলক ছুঁয়েছেন মেসি। ক্লাব ও জাতীয় দল মিলিয়ে পেশাদার ক্যারিয়ারের ১৬তম বছরে এসে। বিরল এই অর্জনের স্বাদ নিতে তাকে খেলতে হয়েছে মোট ৮৬২টি ম্যাচ।

গত ১৭ জুন লেগানেসের বিপক্ষে ৬৯৯তম গোলটি করেছিলেন মেসি। সেদিনও স্পট-কিক থেকেই লক্ষ্যভেদ করেছিলেন। পরে টানা তিনটি ম্যাচে গোল বঞ্চিত ছিলেন। সেভিয়া, অ্যাতলেতিক বিলবাও ও সেলতা ভিগোর বিপক্ষে গোল না পাওয়ায় অপেক্ষা বাড়ে। অবশেষে জালের ঠিকানা খুঁজে নিয়েছেন ক্ষুদে জাদুকর খ্যাত তারকা। কীর্তির মুকুটে যোগ করেছেন নতুন পালক।

এখন পর্যন্ত ক্যারিয়ারের ৮৬২ ম্যাচ খেলে মেসি করেছেন ৬৯৯ গোল। এর মধ্যে রয়েছে ৫৪টি হ্যাটট্রিক। গোলে সহায়তা করেছেন ২৯৩ বার। প্রাপ্তির খাতায় যোগ করেছেন ৩৪টি ট্রফি। বিনিময়ে পেয়েছেন ৬টি ব্যালন ডি অর, ৬টি ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুট।

মেসির এই অনবদ্য যাত্রার শুরুটা হয়েছিল ২০০৫ সালের ১ মে। স্প্যানিশ লা লিগায় আলবাসেতের বিপক্ষে সিনিয়র পর্যায়ের প্রথম গোলটি করেছিলেন তিনি। এরপর থেকে থামার কোনো লক্ষণ নেই! যত সময় গড়িয়েছে, গোলমুখে তত ক্ষুরধার হয়ে উঠেছেন রেকর্ড ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী তারকা।

৩২ বছর বয়সী ফরোয়ার্ডের ৬৩০টি গোল এসেছে বার্সেলোনার জার্সিতে। খেলেছেন মোট ৭২২টি অফিসিয়াল ম্যাচ। কাতালানদের হয়ে লা লিগায় ৪৭৮ ম্যাচে ৪৪১টি, উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ১৪১ ম্যাচে ১১৪টি ও অন্যান্য প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ১০৩ ম্যাচে ৭৫টি গোল করেছেন মেসি। বাকি ৭০টি গোলের দেখা তিনি পেয়েছেন জাতীয় দল আর্জেন্টিনার হয়ে ১৩৮ ম্যাচে।

এক নজরে মেসির ৭০০ গোল :

১- আলবাসেত, ২০০৫

১০০- ডায়নামো কিয়েভ, ২০০৯

২০০- রিয়াল মাদ্রিদ, ২০১১

৩০০- রায়ো ভায়েকানো, ২০১২

৪০০- গ্রানাদা, ২০১৪

৫০০- ভ্যালেন্সিয়া, ২০১৬

৬০০- অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ, ২০১৮

৭০০- অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ, ২০২০।

advertisement