advertisement
advertisement

রাজশাহীর বাঘায় কলেজছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি
৩ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ২ জুলাই ২০২০ ২২:৫৯
advertisement

বাঘায় গাছের ডাল কাটা নিয়ে বিরোধে প্রতিপক্ষের হাতুড়ি ও লোহার রডের আঘাতে হৃদয় আহম্মেদ নামে এক কলেজছাত্র নিহত হয়েছেন।

তিনি উপজেলার কলিগ্রাম পশ্চিমপাড়া গ্রামের দীন মোহাম্মদ দুখুর ছেলে এবং শাহ দৌলা সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও ৬ জন। বুধবার (১ জুলাই) দুপুর আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বুধবার হৃদয় নিজ বাড়ির মেহগনিগাছের ডাল কাটছিলেন। এ সময় প্রতিবেশী সাদেক আলী গাছটি তার জমিতে বলে দাবি করে। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে বাগবিত-া শুরু হয়। এক পর্যায়ে সাদেক আলী, তার ছেলে সুজন

আলী, স্ত্রী রুমিয়া বেগম গং বাঁশের লাঠি, হাতুড়ি ও লোহার রড দিয়ে হৃদয় ও তার পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা করেন। হামলায় হৃদয়, তার বাবা দুখু, মা সাহানা বেগমসহ ৬ জন গুরুতর আহত হন। স্থানীয়দের সহায়তায় তাদের উদ্ধার করে বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক হৃদয়কে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। সেখান থেকে পরে তাকে ঢাকার একটি হাসপাতালে রেফার করা হয়। পরে রাত সাড়ে ৮টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় হৃদয়ের বাবা দুখু রাতেই ১৫ জনের নাম উল্লেখ করে বাঘা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রাতেই ৪ জন ও গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ১ জনকে গ্রেপ্তার করে।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, গতকাল সকালে নিহতের লাশ রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে এবং গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

advertisement
Evaly
advertisement