advertisement
advertisement
advertisement
DBBL
advertisement
advertisement

চট্টগ্রামে করোনা রোগী ৯ হাজার ছাড়াল

চট্টগ্রাম ব্যুরো
৩ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৩ জুলাই ২০২০ ১০:৪৪
advertisement

গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে নতুনভাবে ২৭১ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে নগরীতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা এখন ৯ হাজার ১২৩। নতুন ৬ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা ১৮৪ জন।
চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, চট্টগ্রামের সরকারি চারটি (ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশস ডিজিজেস-বিআইটিআইডি, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ইউনিভার্সিটি-সিভাসু, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়) ও বেসরকারি দুটি ল্যাব (ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ও শেভরন) এবং কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজের একটি ল্যাব মিলিয়ে মোট এক হাজার ৩৭৩টি নমুনা পরীক্ষা হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১৪২টি নমুনা পরীক্ষা করে ৫১ জন,

বিআইটিআইডি ল্যাবে ৩১৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৩ জন এবং চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে ৪০৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ১০০ জনের করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়।
চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ২৫৪টি নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত ২৫ জনের এবং ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ১৫৭টি নমুনা পরীক্ষায় ৪১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শেভরন ল্যাবে ৯৬টি নমুনা পরীক্ষায় ৩০ জনের করোনা শনাক্ত এবং কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের একজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।
সিভিল সার্জন বলেন, নতুন আক্রান্ত ২৭১ জনের মধ্যে ১৮৭ জন নগরের বাসিন্দা। বাকি ৮৪ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত ১৮৪ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।
এদিকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। তার নাম আ ফ ম জাহেদ (৪০)। তিনি নগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের (উত্তর জোন) কনস্টেবল।
জানা গেছে, গত ২৩ জুন থেকে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী নিজ বাসায় আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন জাহেদ। ২৫ জুন করোনা পরীক্ষার জন্য তিনি নমুনা প্রদান করেন। স্বাস্থ্যের অবনতি হলে ৩০ জুন রাতে তিনি দামপাড়া পুলিশ লাইন্সে বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতালে যান। সেখান থেকে ওই রাতেই তাকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। জেনারেল হাসপাতালের আইসিউতে চিকিৎসাধীন তিনি মারা যান।
নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার ও জনসংযোগ কমকর্তা আবু বকর সিদ্দিক বলেন, মৃত্যু পরবর্তী সময় করোনা পরীক্ষার জন্য কনটেবল জাহেদের নমুনা পাঠানো হয়। ফল এখনো পাওয়া যায়নি। তিনি করোনা পজিটিভ ছিলেন কিনা তা রিপোর্ট পেলেই নিশ্চিত হওয়া যাবে।

advertisement
Evaly
advertisement