advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সব খবর

advertisement

পর্যটকে সরব হচ্ছে সাগরকন্যা কুয়াকাটা

কুয়াকাটা প্রতিনিধি
৩ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৩ জুলাই ২০২০ ০০:০২
advertisement

করোনা ভাইরাসে পর্যুদস্ত সাগরকন্যাখ্যাত পর্যটনকেন্দ্র কুয়াকাটা পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে গত বুধবার। এরপরই সরব হয়ে উঠছে এলাকা। করোনা মোকাবিলায় সরকারের নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে কুয়াকাটার হোটেল-মোটেলসহ পর্যটনসংশ্লিষ্ট সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলার নির্দেশনা দিয়েছে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসন মতিউল ইসলাম চৌধুরি।

বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের তত্ত্বাবধানে কুয়াকাটা হোটেল-মোটেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন গত ৫ জুন স্থানীয় একটি হোটেলে আয়োজন করে আলোচনাসভা প্রশিক্ষণের। এতে অংশ নেন পর্যটকদের বহনকারী রিকশা, ভ্যানচালক ও পর্যটন ব্যবসায়ীরা। তারা ৩ দিনের এবং আবাসিক হোটেল ম্যানেজারদের একদিনের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এ ছাড়া প্রতিটি আবাসিক হোটেলে রুম সার্ভিসের জন্য পিপিই, থার্মাল স্ক্যানার, অক্সিমিটার, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ডগ্লাভস, মাস্ক ইত্যাদি রাখার পাশাপাশি পর্যটকদের যানবাহন জীবাণুনাশক স্প্রে করে জীবাণুমুক্ত করারও ব্যবস্থা নিয়েছে আবাসিক হোটেলগুলো। কুয়াকাটা হোটেল-মোটেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোতালেব শরীফ বলেন, পর্যটক গাড়িসহ হোটেলে এলে হোটেলকর্মীরা তার গাড়িসহ মালামাল জীবাণুনাশক দিয়ে স্প্রে করবেন। এর পর পর্যটক নির্ধারিত কক্ষে যাওয়ার আগে সাবান দিয়ে ভালোভাবে হাত-পা ধুয়ে যাবেন। স্বাস্থ্যবিধি অনুসারে হোটেলের প্রতিটি কক্ষ ব্যবহার-উপযোগী করা হবে।

কলাপাড়া ইউএনও আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক বলেন, করোনাকালীন স্বাস্থ্যবিধি মেনে হোটেল ব্যবস্থাপনা অব্যাহ রাখতে বলা হয়েছে। এর ব্যত্যয় ঘটলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

advertisement
Evaly
advertisement