advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

আগস্টেই বাজারে আসতে পারে ভারতের টিকা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
৪ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৩ জুলাই ২০২০ ২৩:২৪
advertisement

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ভারতে তৈরি সম্ভাব্য টিকাটি দেশটির স্বাধীনতা দিবসের আগেই বাজারে আসতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। ভারত বায়োটেক ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেডের (বিবিআইএল) সহযোগিতায় কোভ্যাক্সিন নামের টিকাটি বাজারে আনতে যাচ্ছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর)। তবে এনডিটিভি জানিয়েছে, বাজারে আনার আগে মানবদেহে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করে দেখার জন্য দেশের অন্তত ১২টি প্রতিষ্ঠানকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এদিকে ইন্ডিয়া টুডেকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিশেষ

দূত ড. ডেভিড নাবারো বলছেন, প্রতিষেধকের জন্য অন্তত আড়াই বছর অপেক্ষা করতে হতে পারে।

নতুন করোনা ভাইরাসে এরই মধ্যে বিশ্বের এক কোটি আট লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন পাঁচ লাখ ২০ হাজারের বেশি জন। কিন্তু গত ছয় মাসের প্রচেষ্টায় এখনো কোনো কার্যকর টিকা বা ওষুধ তৈরি করা সম্ভব হয়নি। তবে পৃথিবীব্যাপী অন্তত ১২০টি দল পৃথকভাবে টিকা তৈরির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। গত সপ্তাহে বাংলাদেশের একটি দলও একটি সম্ভাব্য টিকা তৈরির দাবি করেছে।

আইসিএমআর ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে তাদের সম্ভাব্য টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগের জন্য বিশাখাপত্তনম, রোহতক, দিল্লি, পাটনা, বেলগাঁও, নাগপুর, গোরখপুর, হায়দরাবাদ, গোয়া, আর্য নগর, কানপুর ও কাট্টানকুলাথুরের প্রতিষ্ঠানগুলোকে দায়িত্ব দিয়েছে।

ঢালাও ভাবে ক্লিনিকাল ট্রায়াল শুরুর জন্য দেশের ওই প্রতিষ্ঠানগুলোকে চিঠি দিয়েছে আইসিএমআর। এতে লেখা হয়েছে, টিকা বানানোর জন্য সার্স-কভ-২ ভাইরাসের স্ট্রেন সংগ্রহ করা হয়েছিল আইসিএমআরের অধীনে থাকা পুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজি থেকে।

সংস্থাটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, খুব দেরি হলেও যেন ১৫ আগস্টের মধ্যেই এই টিকা সবার ব্যবহারের জন্য বাজারে নিয়ে আসা যায় সেজন্য সব ধরনের চেষ্টাই করা হচ্ছে।

advertisement
Evaly
advertisement