advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

চায়ের নেশায় মহাবিপদ

আমাদের সময় ডেস্ক
৪ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৪ জুলাই ২০২০ ১১:৫৬
advertisement

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় সত্তরোর্ধ্ব এক বৃদ্ধকে ভর্তি করা হয়েছিল হাসপাতালে। তবে তার ছিল চা পানের প্রবল নেশা। তাই মাঝে মধ্যে গরম চা খেতে দিতে বলতেন হাসপাতাল কর্মীদের। কিন্তু কেউ তার কথায় কান না দেওয়ায় তিনি নিজেই চায়ের দোকানের খোঁজে হাসপাতাল ছেড়ে বেরিয়ে যান। পরে তাকে

 

হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে, কিন্তু করোনা আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন চা-দোকানি।

সম্প্রতি এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর নাগারভাবিতে। সেখানে একটি বেসরকারি হাসপাতালে কয়েক দিন চিকিৎসা নিতে হয় ওই বৃদ্ধকে। হাসপাতালের ঘড়িতে ভোর পাঁচটা বাজতে না বাজতেই চায়ের দাবি জানাতে থাকতেন করোনা আক্রান্ত ওই বৃদ্ধ। তা না মেলায় ঘণ্টাদুয়েক পর তিনি চায়ের দোকানের খোঁজে হাসপাতাল ছেড়ে বাইরে বেরিয়ে যান।

কিছুদূরেই একটি চায়ের দোকানও দেখতে পান। সেখানেই ধোঁয়া ওঠা চায়ে চুমুক দিয়ে সবে গলা ভিজিয়েছেন, এমন সময়ে তার হাতের স্যালাইনের নল দেখে এক ব্যক্তির কৌতূহল জাগে। তিনি জানতে চান কী হয়েছে? বৃদ্ধের সাফ জবাব, তিনি করোনা আক্রান্ত। হাসপাতালে চা না পাওয়ায় বাধ্য হয়ে বেরিয়ে পড়েছেন।

এদিকে ভয়াবহ এই তথ্য শুনে চায়ের দোকানের সবাই চমকে যান। এর পর ওই চায়ের দোকান মালিকই হাসপাতালে খবর দেন। হাসপাতালকর্মীরা খবর পাওয়া মাত্রই বৃদ্ধকে উদ্ধার করেন। তবে চায়ের দোকানিসহ ওই রোগীর সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিরা সংক্রমণের আশঙ্কায় উদ্বেগে দিন কাটাচ্ছেন।

advertisement
Evaly
advertisement