advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বরিশালে করোনা ইউনিটে শতক পেরিয়েছে মৃত্যু

আল মামুন বরিশাল
৪ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৩ জুলাই ২০২০ ২৩:৩৬
advertisement

শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন রোগী মৃত্যু সংখ্যা শতক অতিক্রম করেছে। শুক্রবারের আগের ২৪ ঘণ্টায় চারজনসহ এ পর্যন্ত হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ১০৪ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে ৩৭ জনের করোনা পজিটিভ।

অধিকহারে রোগী মৃত্যুর জন্য করোনা ইউনিটের চিকিৎসাহীনতাকে দায়ী করেছেন ভুক্তভোগীরা। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন হাসপাতালের পরিচালক ডা. বাকির হোসেন।

করোনা ইউনিটে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীর স্বজনদের দাবি, করোনা ইউনিটে নামমাত্র চিকিৎসা হয়। ডাক্তাররা রোগীর কাছেই যান না। কোনো রোগীর অবস্থা খারাপ হলেও ডাক্তার ডেকে পাওয়া যায় না। বিশেষ করে শ্বাসকষ্টের রোগীদের ফেলে রাখা হয় অক্সিজেন এবং আইসিইউ সেবা ছাড়া। ডাক্তারদের তদারকির অভাবে একের পর এক রোগী মারা যাচ্ছে বলে দাবি স্বজনদের। হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৯ মার্চ প্রথম এক রোগীর মৃত্যু হয়। সেদিন থেকে শুক্রবার পর্যন্ত গত ৩ মাসে ১০৪ রোগীর মৃত্যু হল।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত হাসপাতাল থেকে চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪৬৬ জন। এর মধ্যে ১৮৫ জন ছিলেন পজিটিভ এবং নেগেটিভ ছিলেন ২৮১ জন। সর্বশেষ শুক্রবার বিকাল পর্যন্ত করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিলেন ১২৭ রোগী। এর মধ্যে ৬৩ জনের করোনা পজিটিভ। শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালক ডা. বাকির হোসেন দৈনিক আমাদের সময়কে বলেন,

শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ইউনিটের দায়িত্বরত চিকিৎসক-নার্সসহ অন্যরা শতভাগ দায়িত্ব নিয়ে রোগীদের স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে আসছে। রোগীর চিকিৎসা নিয়ে আমাদের কোনো ধরনের গাফিলতি নেই।

তারপরও কারও বিরুদ্ধে অভিযোগ লিখিতভাবে জানালে খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান পরিচালক।

advertisement
Evaly
advertisement