advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ইভ্যালি ফুডে যুক্ত হলো গ্লোরিয়া জিন্স কফিস ও বিএফসি

প্রেস বিজ্ঞপ্তি
৪ জুলাই ২০২০ ১৪:০১ | আপডেট: ৪ জুলাই ২০২০ ১৪:১৩
advertisement

ইভ্যালির খাবার সরবরাহ সেবা ইভ্যালি ফুড এক্সপ্রেসে (ই-ফুড) যুক্ত হলো গ্লোরিয়া জিন্স কফিস এবং বেস্ট ফ্রাইড চিকেন (বিএফসি)। জনপ্রিয় এই দুই ফুড চেইনের সকল খাবারই এখন থেকে অর্ডার করা যাবে ই-ফুডের এক্সপ্রেস শপের মাধ্যমে।

আজ শনিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এমনই ঘোষণা দেয় দেশের অন্যতম শীর্ষ ই-কমার্স ভিত্তিক মার্কেটপ্লেস ইভ্যালি ডট কম ডট বিডি।

গ্লোরিয়া জিনস কফিস বাংলাদেশের তিনটি শাখা থেকে খাবার অর্ডার করতে পারবেন গ্রাহকেরা। গুলশান এলাকার জন্য গুলশান-১ ও ২ শাখা এবং ধানমণ্ডি এলাকার জন্য ধানমণ্ডি শাখা থেকে অর্ডারকৃত খাবার সরবরাহ করবে ইভ্যালি।

এ লক্ষ্যে অস্ট্রেলিয়া ভিত্তিক চেইনশপ গ্লোরিয়া জিনস কফিস-এর বাংলাদেশ ফ্রাঞ্চাইজি প্রতিষ্ঠান নাভানা ফুডসের সঙ্গে এক সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করে ইভ্যালি। চুক্তিপত্রে ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামিমা নাসরিন এবং নাভানা ফুডস লিমিটেডের হেড অব বিজনেস এফ এম মুরশেদ এলাহী নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন।

অন্যদিকে পুরো রাজধানী জুড়ে বিএফসি’র ১৭টি শাখার খাবার ভোজনরসিকদের কাছে পৌঁছে দেবে ইভ্যালি। এ লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠান দুইটির মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তিপত্রে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন ইভ্যালির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন এবং বিএফসি'র পরামর্শক আশরাফ উদ দৌলা।

এ বিষয়ে ইভ্যালির চেয়ারম্যান এবং নারী উদ্যোক্তা শামীমা নাসরিন বলেন, ‘মানুষদের এই সময়ে যত বেশি সম্ভব ঘরে থাকা উচিত। তবে ভোজনরসিক বাঙালির স্বপরিবারে খাওয়া-দাওয়া করার সংস্কৃতি বিনোদনের একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যমও বটে। যথাযথ স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত করে "কনট্যাক্ট লেস" উপায়ে গ্রাহকদের সেই সেবাটি দিতেই কাজ করছে ইভ্যালি। আমাদের সঙ্গে প্রতিষ্ঠান দুইটি যুক্ত হওয়ার মাধ্যমে গ্রাহকদের জিভে জল এনে দেওয়া খাবারের তালিকা আরও সমৃদ্ধ হলো।’

উভয় চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানেই ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাসেলসহ প্রতিষ্ঠানগুলোর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

advertisement