advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বালিশকা-
এক ঠিকাদার ও প্রকৌশলীর জামিন মেলেনি

৬ জুলাই ২০২০ ০১:৪০
আপডেট: ৬ জুলাই ২০২০ ০১:৪০
advertisement

পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদুৎকেন্দ্র প্রকল্পে বালিশ, আসবাব ও অন্যান্য সামগ্রী ক্রয়সংক্রান্ত দুর্নীতির তিন মামলায় উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. শফিকুল ইসলাম জামিন পাননি। গতকাল রবিবার হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদারের বেঞ্চ তার জামিন আবেদন নিয়মিত আদালত চালু হওয়া পর্যন্ত স্ট্যান্ডওভার রাখেন। এ ছাড়া একই ঘটনায় দায়ের হওয়া একটি মামলায় ঠিকাদার আসিফ হোসেনের জামিন আবেদন কার্যতালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন হাইকোর্টের একই বেঞ্চ।
এদিন রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক। প্রকৌশলীর পক্ষে

ছিলেন আইনজীবী সাঈদ আহমেদ রাজা ও ঠিকাদারের পক্ষে ব্যারিস্টার ফিদা এম কামাল। এ ছাড়া দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান।
গত বছরের ১২ ডিসেম্বর পাবনায় রূপপুর পারমাণবিক বিদুৎকেন্দ্র প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগে একাধিক মামলা করে দুদক। এর মধ্যে তিন মামলায় উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. শফিকুল ইসলাম জামিন চান। এ ছাড়া ঠিকাদার আসিফ হোসেন দুটি মামলায় জামিন চান। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মজিদ সনস কনস্ট্রাকশন লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আসিফ হোসেনকে শর্তসাপেক্ষে ২৯ জুন এক মামলায় জামিন দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।
দুদক আইনজীবী খুরশীদ আলম খান জানান, ২৯ জুন যে মামলায় হাইকোর্ট জামিন দেন, সেই জামিন আদেশ ১ জুলাই স্থগিত করেছিলেন আপিল বিভাগের চেম্বারজজ আদালত। এ কারণে তার আইনজীবী বলছেন, আরেক মামলায় জামিন স্থগিত হয়েছে তাই এই মামলা তারা আউট অব লিস্ট করতে চান। এর পর আদালত মামলাটি কার্যতালিকা থেকে বাদ দেন।

advertisement