advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

তেঁতুলিয়ায় দশম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

পঞ্চগড় প্রতিনিধি
৭ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৬ জুলাই ২০২০ ২২:০৮
advertisement

তেঁতুলিয়া দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত রুবেল হোসেনকে আসামি করে তেঁতুলিয়া মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে পুলিশ আসামিকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। বর্তমানে মেয়েটি পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, তেঁতুলিয়া উপজেলার দেবনগর ইউনিয়নের হেংগাডোবা গ্রামের রফিজুল ইসলামের ছেলে মো. রুবেল ওই ছাত্রীকে দীর্ঘদিন ধরেই উত্ত্যক্ত করে আসছিল। বিদ্যালয়ে যাতায়াতের পথে সে তাকে কুপ্রস্তাব দিত। বিষয়টি ওই ছাত্রী তার বাবা-মাকে জানায়। তারা রুবেলের পরিবারকে অভিযোগ করে। এতে রুবেল ক্ষিপ্ত হয়ে আরও বেপরোয়া হয়। গত শনিবার রাতে ওই কিশোরী ঘর থেকে বের হলে পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা রুবেল তার মুখ চেপে ধরে বাড়ির পাশের বাঁশবাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে ওই কিশোরী অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে বাড়ির টয়লেটে বিবস্ত্র অবস্থায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। মাঝরাতে ওই এলাকায় ওই যুবককে দেখতে পেয়ে স্থানীয়দের সন্দেহ হয়। তারা তাকে আটকের চেষ্টা করে। কিন্তু সে পালিয়ে যায়। এদিকে ওই কিশোরীকে ঘরে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করে পরিবারের লোকজন। ওই বাঁশঝাড়ে রুবেলের এবং ওই কিশোরীর জুতা, পরনের কাপড় খুঁজে পায়। পরদিন সকালে পরিবারের লোকজন টয়লেটে গিয়ে বিবস্ত্র অবস্থায় মেয়েটিকে খুঁজে পেয়ে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় ওই কিশোরীর বাবা গত রবিবার থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তেঁতুলিয়া থানার উপপরিদর্শক আমজাদ আলী ম-ল জানান, ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে আমলি আদালতের বিচারকের কাছে জবানবন্দির জন্য হাজির করা হবে মেয়েটিকে। আসামিকে গ্রেপ্তারে প্রযুক্তির সাহায্য নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

তেঁতুলিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু সাঈদ চৌধুরী জানান, ওই কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষার প্রস্তুতি চলছে।

advertisement
Evaly
advertisement