advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মাঠে ফিরতে চান মুশফিক

ক্রীড়া প্রতিবেদক
৭ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৬ জুলাই ২০২০ ২৩:০৪
advertisement

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে এসেছিলেন মুশফিকুর রহিম। অনেক দিন পর মাঠের সবুজ ঘাসের গালিচায় পা রেখেছিলেন তিনি। কত স্মৃতি রয়েছে এখানে। মুশফিকের ভেতরটা নিশ্চয় হু হু করে কেঁদে উঠেছিল! আকাশের দিকে তাকিয়ে সৃষ্টিকর্তার কাছে কী চেয়েছেন তিনি? মুশফিক হয়তো মনে মনে প্রার্থনা করেছেন, ‘পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে দাও হে প্রভু। আমরা আবার মাঠে ফিরতে চাই। মাঠের মানুষ এভাবে ঘরবন্দি থাকতে যে আর ভালো লাগছে না!’

সত্যিই তো। এভাবে একটানা ঘরবন্দি থাকতে কারইবা ভালো লাগে? সবশেষ মার্চে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। এর পর ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ শুরু (১৫ মার্চ) হয়েছিল। তবে করোনা ভাইরাসের কারণে প্রথম রাউন্ড শেষেই অনির্দিষ্টকালের জন্য লিগ বন্ধ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশে ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সেই যে ক্রিকেট বন্ধ হলো আর মাঠে ফিরল না! ফিরবে কীভাবে? প্রতিদিনই যে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। রোজার ঈদের পর সরকারি নির্দেশে অফিস খুলেছে। তবে দেশে ক্রিকেট চর্চা এখনো শুরু হয়নি। বিসিবি পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে। তারা কোনো রকম ঝুঁকি নিতে চায় না। এ কারণেই জুলাইয়ের শ্রীলংকা সফর স্থগিত করেছে।

মুশফিক স্টেডিয়ামের মাঠে দাঁড়িয়ে একটি ছবি তুলেছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তা পোস্ট করেছেন। ক্যাপশন দিয়েছেন, ‘চমৎকার এই ভেন্যুকে মিস করছি। শুধু সৃষ্টিকর্তাই জানেন কবে আমরা আবার অনুশীলন শুরু করতে পারব।’ বোঝাই যাচ্ছে, মাঠে ফিরতে কতটা উন্মুখ হয়ে আছেন দেশের অভিজ্ঞ এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান। অবশ্য লকডাউনের সময় তিনি মাঠে এসে ব্যক্তিগত উদ্যোগে অনুশীলন করতে চেয়েছিলেন। বিসিবি তাতে রাজি হয়েছিল। শেষ পর্যন্ত আর মাঠমুখো হননি মুশফিক। ঘরে থাকাটাই নিরাপদ মনে করেছেন। বাসায় ফিটনেস নিয়ে নিয়মিত কাজ করে চলেছেন বাংলাদেশের সাবেক এই অধিনায়ক। করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন মাঠের বাইরে টাইগাররা। তারা পরিবারকে সময় দিতে পারছেন যা এর আগে কখনই হয়নি! মাঠে ফিরতে মরিয়া মুশফিক এটাকে ইতিবাচকভাবে দেখছেন। তিনি বলেছেন, ‘খেলোয়াড়রা পরিবারকে সেভাবে সময় দিতে পারে না। বৈশ্বিক এই মহামারীর কারণে এখন সবাই বাসায়। পরিবারকে সময় দিতে পারছি আমরা। আমি বলব, পরিবারকে সময় দিতে পারাটাও ইতিবাচক একটা দিক।’ শুধু মুশফিক একা নন, মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামকে মিস করছেন জাতীয় দলের সব ক্রিকেটারই। মোস্তাফিজ, লিটন, সৌম্যরা সবাই মাঠে ফেরার অপেক্ষায় প্রহর গুনছেন। কবে নাগাদ তারা মাঠে ফিরতে পারবেন তা নিশ্চিত করে বলা না গেলেও বিসিবি চেষ্টা করছে এ মাসেই ক্রিকেট চর্চা শুরু করতে। অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হয়ে যাওয়া ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ দিয়েই হয়তো মাঠে ফিরতে পারে দেশের ক্রিকেট।

এফটিপি অনুযায়ী এ বছর ব্যস্ত সূচি ছিল টাইগারদের সামনে। তবে করোনা ভাইরাসের থাবায় সব ভেস্তে গেছে। আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার জন্য জাতীয় দলকে এখন অপেক্ষা করতে হবে। সেপ্টেম্বরে ৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে নিউজিল্যান্ড সফরে যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। অক্টোবরে ৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফরে আসবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। এর পর ডিসেম্বরে শ্রীলংকার বাংলাদেশ সফর দিয়ে এ বছরের ক্রিকেট ক্যালেন্ডার শেষ হবে তামিম, মুশফিদের। এর বাইরে এশিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ রয়েছে। তবে এই দুটো টুর্নামেন্ট মাঠে গড়ানোর সম্ভাবনা একেবারেই ক্ষীণ। 

advertisement