advertisement
advertisement

নতুন শর্ত স্থগিতে জিপির রিট বাদ তালিকা থেকে

নিজস্ব প্রতিবেদক
৭ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৭ জুলাই ২০২০ ০১:০৯
advertisement

গ্রামীণফোনের (জিপির) ওপর বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসির) আরোপ করা নতুন দুই শর্ত স্থগিতের নির্দেশনা চেয়ে দাখিল করা রিট আবেদন কার্য তালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন হাইকোর্ট। গতকাল সোমবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম এ আদেশ দেন। ফলে গ্রামীণফোনের ওপর বিটিআরসির দেওয়া শর্তাবলী বহাল রয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট আইনজীবীরা। আদালতে গ্রমীণফোনের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান। বিটিআরসির পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার থন্দকার রেজা-ই-রাকিব।

জানা যায়, বিটিআরসি ২০১৮ সালের তাৎপর্যপূর্ণ বাজার ক্ষমতা (এসএমপি) বিধান জারি করে। এতে কোনো মুঠোফোন কোম্পানির গ্রাহক সংখ্যা, রাজস্ব অথবা তরঙ্গে তিন ক্ষেত্রের একটিতে ৪০ শতাংশের বেশি বাজার হিস্যাধারী হলে এসএমপি অপারেটর হিসেবে ঘোষণা করা যায়। জিপি গ্রাহক সংখ্যা ও অর্জিত বার্ষিক রাজস্বের দিক দিয়ে ৪০ শতাংশ বাজার হিস্যাধারী

হওয়ায় এ বিধানমালার অধীনে গতবছর ১০ ফেব্রুয়ারি জিপিকে এসএমপি অপারেটর হিসেবে ঘোষণা করে।

এ প্রবিধানমালার অধীনে বিটিআরসি গত ২১ জুন গ্রামীণফোনের ওপর নতুন দুটি শর্ত আরোপ করে। একটি শর্ত হলো, গ্রহকের ফোন নম্বর ঠিক রেখে অপারেটর বদলে গ্রামীণফোনের ক্ষেত্রে ‘লকিং পিরিয়ড’ ৯০ দিনের পরিবর্তে ৬০ দিন করা হয়েছে। আরেক শর্তে বলা হয়েছে, গ্রাহকদের জন্য নতুন কোনো অফার বা প্যাকেজ দিতে হলে বিটিআরসি থেকে আগে অনুমোদন নিতে হবে। এ ছাড়া পুরনো সেবা বা অফার বা প্যাকেজ চালু রাখতেও বিটিআরসি থেকে আবার অনুমোদন নিতে হবে। এ নতুন দুটি শর্ত চ্যালেঞ্জ করে গত ৩০ জুন রিট আবেদন করে গ্রামীণফোন।

advertisement