advertisement
advertisement

চট্টগ্রামে করোনা রোগী ১০ হাজার ছাড়াল

চট্টগ্রাম ব্যুরো
৭ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৭ জুলাই ২০২০ ০১:০৯
advertisement

একদিনে ১ হাজার ৩১৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে ২৯২ জনের দেহে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। নতুন শনাক্তদের মধ্যে ২৩২ জন নগরের এবং ৬০ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। এ নিয়ে চট্টগ্রামে ১০ হাজার ১৮০ জনের মধ্যে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হলো। এর মধ্যে ৭ হাজার ৫৭ জন নগরের ও ৩ হাজার ১২৩ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় চট্টগ্রাম নগরে একজনের ও উপজেলায় ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখন পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন মোট ১৯৫ জন। এর মধ্যে ১৩৮ জন নগরের ও ৫৭ জন উপজেলার বাসিন্দা।

গতকাল সোমবার সকালে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় বিআইটিআইডিতে ৬, সিভাসুতে ৪৬, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে ৮৪, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ৪০, ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ৭৩, শেভরন ল্যাবে ৪১ এবং কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ২ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

তিনি বলেন, উপজেলা পর্যায়ে নতুন শনাক্ত ৬০ জনের মধ্যে সাতকানিয়ার ৩, বাঁশখালীর ৪, আনোয়ারার ১, চন্দনাইশের ৬, বোয়ালখালীর ২, রাঙ্গুনিয়ার ২, রাউজানের ১৬, ফটিকছড়ির ৪, হাটহাজারীর ১৭, মিরসরাইয়ের ১ ও সীতাকু-ের ৪ জন আছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে ২১ জন সুস্থ হয়েছেন; চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন মোট ১ হাজার ২১৬ জন করোনা রোগী। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ৯৪ দিনের হিসাব পর্যালোচনা করে দেখা যায়, সামাজিক সংক্রমণের শুরু হওয়ার কারণে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আক্রান্তের পরিসংখ্যান ব্যাখ্যা করেছে দ্বিপদ্বী সমীকরণে। কিন্তু চট্টগ্রামে মিলেনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এ সমীকরণ। কেননা এখানে নমুনা পরীক্ষার পরিমাণ উল্লেখযোগ্য হারে কম।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাবে দ্বিতীয় মাসে আক্রান্ত সংখ্যার ২ দশমিক ৩ বর্গগুণ হবে। কিন্তু চট্টগ্রামে এপ্রিল মাসে শনাক্ত হয়েছেন ৭০ জন এবং মে মাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৮৩৬ জন। অথচ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব অনুযায়ী মে মাসে আক্রান্ত হওয়ার কথা ১৭ হাজার

৫২৭ জন। জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য-উপাত্ত পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব অনুযায়ী যতজন আক্রান্ত হওয়ার কথা ছিল ততজনের নমুনা পরীক্ষাও চট্টগ্রামে হয়নি। তাই এ সমীকরণ পৃথিবীর অন্যান্য দেশের সঙ্গে মিললেও মিলেনি বাংলাদেশের সঙ্গে।

পরিসংখ্যানে দেখা যায়, চট্টগ্রামে নমুনা পরীক্ষা ও আক্রান্তের সংখ্যা গত ৯৩ দিনের বিবেচনায় আগামী ৩০ দিনে আক্রান্তের সংখ্যা হতে পারে ৮ হাজারের অধিক। তবে এর মধ্যে যদি নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়ানো হয়, তাহলে আক্রান্তের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

চলতি মাসে ৬ হাজার ৩০০ নমুনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৩৪৮ জন। গত ৪ জুলাই ২২০, ৩ জুলাই ২৬৩, ২ জুলাই ২৮২ ও ১ জুলাই ২৭১ জন। যা গড় হিসাবে প্রতিদিন ২১ দশমিক ৪০ শতাংশ আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হওয়ার তথ্য স্পষ্ট হচ্ছে।

advertisement