advertisement
advertisement

মাদক মামলা দিয়ে সিএনজি চালককে ফাঁসানো সেই ওসি ক্লোজড

কোম্পানীগঞ্জ,কবিরহাট সংবাদদাতা
৭ জুলাই ২০২০ ১৭:১৬ | আপডেট: ৭ জুলাই ২০২০ ১৭:৪৬
সিএনজি চালক ও এসআই রূপন নাথ। সংগ্রহীত ছবি
advertisement

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় মিলন (৩৪) নামে এক সিএনজি চালককে মাদক মামলা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টায় ব্যর্থ অভিযুক্ত এসআই রূপন নাথ নিজেই ফেঁসে গেলেন। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় কোম্পানীগঞ্জ থানা থেকে নোয়াখালী পুলিশ লাইনে তাকে ক্লোজড করা হয়েছে।

এর আগে দুপুরে গণমাধ্যম কর্মীদের উপস্থিতিতে অভিযুক্ত রূপন নাথ বেআইনিভাবে আটক করা সিএনজি অটোরিক্সা (নোয়াখালী-থ-১১-৯৩০৮) ও ঘুষ নেওয়া ৫ হাজার টাকা ফেরত দিয়েছেন চালক মিলন ও তার মালিক পিন্টু ভৌমিককে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ সূত্রে এসআই রূপন নাথের ক্লোজ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

গত ৫ জুলাই ভুক্তভোগী সিএনজি অটোরিক্সা চালক মিলন (৩৪) নোয়াখালী পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। একই দিন রাত ১০টায় এসআই রূপন নাথের বিরুদ্ধে করা অভিযোগের তদন্তে আসেন নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী আবদুর রহিম। তদন্তের সময় অভিযোগকারী সিএনজিচালক মিলন তার গাড়ির মালিক পিন্টু ভৌমিক এবং মিলনের বাবা গ্রাম পুলিশ ছায়েদুল হকের জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। তদন্ত সম্পন্ন হলে তদন্তকারী ওই পুলিশ কর্মকর্তা রাতেই কোম্পানীগঞ্জ থানা থেকে জেলা হেড কোয়ার্টারে চলে যান।

পরদিন দুপুর শেষে বিকেলে কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আরিফুর রহমানের নির্দেশে অভিযুক্ত এসআই রূপন নাথ সিএনজি চালক মিলন ও গাড়ির মালিক পিন্টু ভৌমিকের কাছে আটক সিএনজি ও ঘুষের নেওয়া ৫ হাজার টাকা ফেরত দেন। আটককৃত এ গাড়ি ও টাকা লেনদেনের সময় বিষয়টি ভিডিও করে উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীরা, যা তাৎক্ষণিকভাবে ভাইরাল হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মো. আরিফুর রহমান জানান, সিএনজি অটোরিক্সাটি মালিককে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। অভিযুক্ত এসআই রূপন নাথের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের তদন্ত চলছে।

প্রসঙ্গত; এসআই রূপন নাথের বিরুদ্ধে কোম্পানীগঞ্জে মাদক ব্যবসা প্রসার, অবৈধ মোটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেটসহ নানা অপকর্মের সঙ্গে তার জড়িত থাকার বিষয়ে বিভিন্ন মহল থেকে অভিযোগ উঠেছে।

advertisement