advertisement
advertisement

সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে কোরবানির পশুর হাট

সৈয়দপুর প্রতিনিধি
৮ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৭ জুলাই ২০২০ ২৩:৩০
advertisement

আসন্ন ঈদুল আজহা সামনে রেখে ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের অধীন ৬৬ আর্টিলারি ব্রিগেডের আওতাধীন ১৯ মিডিয়াম রেজিমেন্ট আর্টিলারির তত্ত্বাবধানে সামজিক দূরত্ব বজায় রেখে স্বাস্থ্যসম্মত পশুর হাট চালু করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার থেকে নীলফামারীর সৈয়দপুরে ঢেলাপীর হাটে এ নিয়ম চালু করা হয়।

মূলত বর্তমানে চলমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা এবং হাটে আসা সাধারণ ক্রেতারা যেন স্বাস্থ্যসম্মতভাবে কোরবানির পশু ক্রয় করতে পারেন, এজন্য নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে পশুর হাটের চারদিকে স্বেচ্ছাসেবক, পুলিশ ও সেনাবাহিনীর সমন্বয়ে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা, ক্রেতা-বিক্রেতাদের একটিমাত্র পথ দিয়ে পশুর হাটে প্রবেশ করানো এবং অপর পথ দিয়ে বের করানো অর্থাৎ ওয়ানওয়ে বাজার ব্যবস্থাপনা। এদিকে প্রবেশপথের শুরুতে রয়েছে একটি চেকপোস্ট। এই চেকপোস্টে সবাইকে জীবাণুমুক্ত করা, হাত ধোয়ার ব্যবস্থা, মাস্ক পরাসহ বিক্রেতাদের জাতীয় পরিচয়পত্র আছে কিনা তা চেক করা হচ্ছে। এ ছাড়া প্রবেশপথে একটি তাপমাত্রা পরিমাপক যন্ত্র বসানো হয়েছে। সেখানে তাপমাত্রা মেপে হাটে প্রবেশ করানো হচ্ছে। প্রবেশপথের পাশে একটি মাস্কের দোকান বসানো হয়েছে। যাতে সহজেই ক্রেতা-বিক্রেতারা মাস্ক কিনতে পারেন। এ ছাড়া সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বিনামুল্যে মাস্ক বিতরণ করা হচ্ছে।

হাটের ইজারাদার মোতালেব হোসেন হক ও সোহেল চৌধুরী জানান, ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের কোরবানির বিষয়টি মাথায় রেখে জেলা প্রশাসন নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছে। প্রতি বিক্রেতার জন্য একটি করে ব্লক তৈরি করে দেওয়া হয়েছে। যাতে ক্রেতা-বিক্রেতাদের মাঝে সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকে। এজন্য আমরা সার্বক্ষণিক প্রশাসনকে সহযোগিতা করছি।

নীলফামারী জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে উল্লিখিত সিদ্ধান্তগুলো নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া এরইমধ্যে হাটে অনলাইন ব্যবস্থা চালু করা হবে। ফলে অনলাইনের মাধ্যমে ক্রেতারা তাদের পছন্দের গরু-ছাগল ক্রয় করতে পারবেন এবং বাসায় পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থাও করা হবে।

advertisement
Evaly
advertisement