advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

এ বছর মাঠে গড়াবে না এশিয়া কাপ!

স্পোর্টস ডেস্ক
৮ জুলাই ২০২০ ১৪:২৭ | আপডেট: ৮ জুলাই ২০২০ ১৪:৩৪
ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি
advertisement

করোনাভাইরাসের কারণে এবার এশিয়া কাপ মাঠে গড়ানো নিয়ে শঙ্কা ছিল। তবে আয়োজন নিয়ে সব সময়ই ইতিবাচক ছিল পাকিস্তান। কিন্তু জল্পনা-কল্পনা উড়িয়ে দিয়ে এশিয়া কাপ বাতিলের খবর দিলেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি।

নিজের ৪৮তম জন্মদিনে এক সাক্ষাৎকারে কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকাকে তিনি বলেন, ‘এশিয়া কাপ বাতিল হয়ে গেছে। এবার আর হচ্ছে না। আমরা আইসিসির সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করছি। দেখা যাক, কবে ওরা চূড়ান্ত ঘোষণা করে। তারপর আইপিএল নিয়ে আমরা সিদ্ধান্ত নেব। আমরা মাথায় রাখছি, যদি অক্টোবর-নভেম্বরের দিকে পরিস্থিতির উন্নতি হলে আইপিএল করা যায়। এই মুহূর্তে ওই সময়ের আগে ক্রিকেট শুরু হওয়ার সম্ভাবনা দেখছি না।’

মেলবোর্নে নতুন করে লকডাউন শুরু হওয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। এ প্রসঙ্গে সৌরভ বলেন, ‘টুর্নামেন্ট করার পরিকল্পনা থাকলে মেলবোর্নকে ছাড়াই করতে পারে আইসিসি। বিশ্বকাপ হবে কিনা, তা পুরোপুরি আইসিসির সিদ্ধান্ত। আইসিসি হয়তো চেষ্টা করছে, সব দিক ভালোভাবে দেখে নিতে, বিশ্বকাপ আয়োজনের আর কোনো সম্ভাবনা আছে কিনা। বিশ্বকাপ থেকে হওয়া মুনাফা থেকে সব দেশকে আর্থিক অনুদানও দেওয়া হয়। তা থেকে ক্রিকেট উন্নয়নের অনেক কাজ হয়। নানা দিক নিয়ে ভাবতে হচ্ছে। তাই হয়তো আইসিসি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে উঠতে পারেনি।’

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপ না হলেও এখনও সৌরভ আশাবাদী আইপিএল আয়োজন নিয়ে। তিনি বলেন, ‘আইপিএল হতে পারে। আমরা চেষ্টা করছি, দেশেই করার। আবারও বলছি, সেটা সম্পূর্ণভাবে নির্ভর করবে দেশের পরিস্থিতির ওপর। অক্টোবর-নভেম্বরে যদি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ না হয় এবং আমাদের দেশের পরিস্থিতি অনেকটা উন্নতি হয়, তাহলে দেশেই আইপিএল করার কথা ভাবা যেতে পারে।’

সেক্ষেত্রে বিদেশে হলে সম্ভাব্য বিকল্পের কথাও বলেছেন বিসিসিআই সভাপতি, ‘শ্রীলঙ্কা আর দুবাই নিয়ে কথাবার্তা চলছে। তবে আমাদের প্রথম পছন্দ অবশ্যই নিজেদের দেশে করা। যদি পরিস্থিতির উন্নতি হয় তবেই তা সম্ভব। আইপিএলে যে আটটা শহরের দল খেলে, তার মধ্যে পাঁচটা শহরেই করোনার প্রকোপ সাংঘাতিক। সেটাও মাথায় রাখতে হবে।’

চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে মাঠে গড়ানোর কথা ছিল এশিয়া কাপ। যেখানে ৬ দলের অংশ নেওয়ার কথা ছিল। এ বছর যেহেতু টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে। তাই এশিয়া কাপও হওয়ার কথা ছিল টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। তবে করোনাভাইরাসের কারণে যে সম্ভাবনা ফিকে হয়ে গেছে।

advertisement