advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ফেসবুকে প্রতারণা
১৬ নাইজেরিয়ান সহ গ্রেপ্তার ১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক
১০ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ৯ জুলাই ২০২০ ২২:৪৩
advertisement

ফেসবুকে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে ১৬ নাইজেরিয়ান ও ২ বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। প্রতারিত এক ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে রাজধানীর পল্লবীসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে গত দুদিনে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান সিআইডির কর্মকর্তা (ডিআইজি) মো. শাহ আলম। গ্রেফতারকৃতরা হলেনÑ চিরনউইয়ি ওয়েমা, এগিনা চুকবেজুকু, চিমাওবি আত্তাহ গ্যাব্রিয়েল, কেনেচুকুবু স্নালি, ওকেকে

সেলেস্টাইন আবুচি, উয়েগবো স্যামুয়েল একেনে, উফোচুকবু তচুকবু উচিবেন্না, ওয়োমবো হেনরি এজিকে, চেবোয়োর নওয়ানেত ভিক্টর ও আনুরুকা গিনিকা ফ্রান্সিস। আর বাংলাদেশি দুজন হলেনÑ মো. ইমরান হোসেন ও হারুন অর রশিদ।

এ সময় জব্দ করা হয় ৭ লাখ টাকা, ২৩টি মোবাইল ফোন, ১৫টি পাসপোর্ট এবং বিপুল পরিমাণ টিশার্ট ও জিন্স প্যান্ট। এ ছাড়া পল্লবীর একটি গোডাউন থেকে প্রতারণার মাধ্যমে কেনা বিপুল পরিমাণ গার্মেন্টস সামগ্রীও জব্দ করে সিআইডি।

শাহ আলম প্রতারক চক্রটিকে ‘নাইজেরিয়ান ফ্রড গ্রুপ’ হিসেবে অভিহিত করেন। তিনি জানান, তারা ওয়ার্ক পারমিট নিয়ে বাংলাদেশে এসে ফেসবুকে বন্ধু সেজে উপহার পাঠানোর নামে প্রতারণা করতেন। এক ভুক্তভোগী কিছুদিন আগে ফেসবুকে এ চক্রটির বন্ধু হন। পরবর্তী সময় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রতারকচক্রটি তার সঙ্গে কথা বলতে শুরু করে। এরই এক পর্যায়ে ভুক্তভোগীকে উপহার হিসেবে আইফোন-আইপ্যাডসহ বেশ কিছু ডলার দেবে বলে জানায় চক্রটির একজন। কয়েকদিন পর ফোনে কেউ একজন কাস্টমস কর্মকর্তা পরিচয়ে দিয়ে উপহারের প্যাকেট এসেছে এবং তা ছাড়াতে হলে ৪৫ হাজার টাকা কাস্টমস ডিউটি দিতে হবে বলে জানায় ভুক্তভোগীকে।

সিআইডির ডিআইজি জানান, ভুক্তভোগী কিছু টাকা দেওয়ার পর আরও অতিরিক্ত টাকা দিতে বলে চক্রটি। না হলে তার বিরুদ্ধে কাস্টমস আইন ও মানি লন্ডারিং আইনে মামলা করা হবে বলে ভয় দেখানো হয়। পরে সিআইডির সাইবার ক্রাইম ইউনিটের সঙ্গে যোগাযোগ করেন ভুক্তভোগী।

শাহ আলম বলেন, সিআইডির সাইবার পুলিশের একটি টিম অভিযোগের সূত্র ধরে দুজন বাংলাদেশি ও একজন নাইজেরীয়কে মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করে। তাদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যে আরও ১৫ নাইজেরীয়কে বুধবার রাজধানীর পল্লবী এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে ধানম-ি থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা হয়েছে।

advertisement
Evaly
advertisement