advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে হত্যা
লাশ উদ্ধারের ৪ ঘণ্টার মধ্যে ডিবির জালে খুনি

হাবিব রহমান
১১ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১০ জুলাই ২০২০ ২৩:১৫
advertisement

লাশ উদ্ধারের মাত্র ৪ ঘণ্টার মধ্যে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) হাতে ধরা পড়েছে ঘাতক। দিয়েছে হত্যাকা-ের বর্ণনা। গ্রেপ্তার হওয়া ওই খুনির নাম আনসার আলী। মোমেনা খাতুন নামে এক নারীকে হত্যা করে সে। গতকাল ভোররাতে রাজধানীর পান্থপথ সিগন্যাল সংলগ্ন গ্রিন রোডে ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির গলিতে মোমেনার ক্ষতবিক্ষত লাশ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় পর তদন্তে নেমে মাত্র ৪ ঘণ্টার ব্যবধানে খুনিকে গ্রেপ্তার করে ডিবি।

ডিবি সূত্র জানায়, ভোর ৪টার দিকে ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির গলিতে মোমেনার লাশ পাওয়া যায়। এ ঘটনার তদন্তে নেমে সকাল ৮টার দিকে খুনি আনসারকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে খুনের সব বর্ণনা দিয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে আনসার বলেছে, সে ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির গলি সড়কের একটি বাড়ির দারোয়ান। ওই বাড়ির পার্কিংয়ের পাশে তার থাকার একটি রুম ও টয়লেট রয়েছে।

পুলিশ জানায়, আনসার বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে এক নারীকে রুমে নিয়ে আসে এবং তাকে ধর্ষণ করতে চায়। এ সময় ওই নারী চিৎকার-চ্যাঁচামেচি করতে চাইলে আনসার রেগে যায়। সে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে মোমেনাকে টয়লেটে নিয়ে শ্বাসরোধে

হত্যা করে। এর পর রাত ২টার দিকে ওই লাশ ওই গলিতে ফেলে আসে। আর ফেলে আসার চিত্র ধরা পড়ে সিসিটিভিতে। ধরা পড়ে খুনি আনসারও। এ ছাড়া রক্তের দাগ পরিষ্কার করলেও কিছুটা লেগে ছিল। এটিও তার প্রতি পুলিশের সন্দেহ বাড়িয়ে তোলে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিবি রমনা জোনাল টিমের এডিসি মিশু বিশ^াস আমাদের সময়কে বলেন, ‘প্রথমে

ওই নারী অজ্ঞাত পরিচয়ের ছিল। পরে ফিঙ্গার প্রিন্টের মাধ্যমে তার পরিচয় শনাক্ত করা হয়। চল্লিশোর্ধ্ব ওই নারীর নাম মোমেনা খাতুন। তার গ্রামের বাড়ি শেরপুর। আনসারের বক্তব্যে ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা বেরিয়ে এসেছে। তাকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে আরও বিস্তারিত জানা যাবে। মোমেনার সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা চলছে।’

ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) মর্গে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় কলাবাগান থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

advertisement