advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ঈদে ঘরে ফেরা মানুষের ঢল বাড়াতে পারে করোনার ঝুঁকি

শিবচর প্রতিনিধি
১১ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১০ জুলাই ২০২০ ২৩:৩৫
advertisement

সামনেই কোরবানির ঈদ। এ ঈদে মানুষকে গ্রামে আসতে নিষেধ করবেন। কারণ মানুষের ঢলে করোনা সংক্রমণ আরও বাড়তে পারে। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে মাদারীপুরের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুব ও ক্রীড়া সচিব মো. আখতার হোসেন শিবচরে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে এসে এই শঙ্কা প্রকাশ করেন।

গতকাল শুক্রবার দুপুরে তিনি শিবচর উপজেলা পরিষদে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সরাসরি সম্পৃক্ত প্রশাসনিক কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য, চিকিৎসক, জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামী লীগ নেতাদের নিয়ে সভা করেন। এ সময় তিনি উপজেলাটির করোনা পরিস্থিতির সার্বিক খোঁজখবর নেন। দুপুরে তিনি জেলার অন্যান্য উপজেলার উদ্দেশে রওনা করেন।

সভায় জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন, পৌর মেয়র আওলাদ হোসেন খান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) এম রকিবুল হাসান, ওসি আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল লতিফ মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. সেলিম, ভাইস চেয়ারম্যান ফাহিমা আক্তার, পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি তোফাজ্জেল হোসেন খান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ কর্মকর্তা ডা. শশাঙ্ক চন্দ্র ঘোষ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

যুব ও ক্রীড়া সচিব মো. আখতার হোসেন সভায় বলেন, সামনে কোরবানির ঈদ। এ ঈদে মানুষকে গ্রামে আসতে নিষেধ করবেন। কারণ মানুষের ঢলে করোনা সংক্রমণ আরও বাড়তে পারে। যদি কেউ আসে, তাকে অবশ্যই ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

সচিব আরও বলেন, আমি শিবচরবাসীকে ধন্যবাদ জানাই। দেশের প্রথম কনটেইনমেন্টের পর সবাই চিন্তিত ছিল শিবচর নিয়ে। আল্লাহর রহমতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এ ক্ষেত্রে চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরীর তৎপরতায় প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, জনপ্রতিনিধি, আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ, স্বাস্থ্যকর্মী স্বাস্থ্যবিধি কর্মসূচি কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করছেন।

advertisement
Evaly
advertisement