advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সব খবর

advertisement

ইংলিশরা চাপে

ক্রীড়া ডেস্ক
১১ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১১ জুলাই ২০২০ ০০:১০
advertisement

সাউদাম্পটনে ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম টেস্ট ম্যাচটি চলছে। করোনা বিরতির পর প্রথমেই পেস বোলারদের আগুনে বোলিং দেখেছে বিশ্ব। জেসন হোল্ডার প্রথম ইনিংসে একাই শিকার করেছেন ৬ উইকেট। ৪২ রানে নেওয়া ৬ উইকেটের ফিগারটি তার ক্যারিয়ারেরই সেরা। এমন বোলিংয়ের পর এলিট এক ক্লাবে ঢুকে পড়েছেন হোল্ডার। গত ২০ (২০০০ সাল থেকে) বছরে কোনো দলের অধিনায়কের সেরা বোলিং ফিগারের তালিকায় চলে এসেছেন ক্যারিবীয় এই পেসার, যেখানে আছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক সাকিব আল হাসানও। ২০০০ সালের পর অধিনায়ক হিসেবে সেরা বোলিং ফিগারের এক নম্বর জায়গাটি এখনো দখলে রেখেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার শন পোলক। ২০০১ সালে কেপটাউনে শ্রীলংকার বিপক্ষে মাত্র ৩০ রান খরচায় ৬ উইকেট নিয়েছিলেন সাবেক এই পেসার। এর পরের জায়গাটিই সাকিবের। ২০১৮ সালে কিংস্টোনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩৩ রানে ৬ উইকেট শিকার করেন টাইগার দলপতি। এখন পর্যন্ত গত বিশ বছরের মধ্যে কোনো অধিনায়কের এটা দ্বিতীয় সেরা বোলিং ফিগার। বৃহস্পতিবার তিন নম্বরে জায়গা করে নিয়েছেন জেসন হোল্ডার। চারে আফগানিস্তানের অফস্পিনার রশিদ খান। আফগান অফস্পিনার বাংলাদেশেরই বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে গত বছর ৪৯ রানে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন। এই তালিকায় পাঁচ নম্বরে আছেন শ্রীলংকার রঙ্গনা হেরাথ। বাঁ-হাতি এই স্পিনার অধিনায়ক হিসেবে ২০১৬ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হারারেতে ৬৩ রানে তুলে নিয়েছিলেন ৮ উইকেট।

হোল্ডার অধিনায়ক হিসেবে ৭ বার ৫ বা তার অধিক উইকেট শিকারের কৃতিত্ব দেখিয়েছেন। ইমরান খান ১২, রিচি বেনো ৯, বিষেন সিং বেদী ৮ বার ৫ বা তার অধিক উইকেট শিকারের কৃতিত্ব দেখিয়েছেন। হোল্ডারের মতো অধিনায়ক হিসেবে সমান ৭ বার ৫ উইকেট শিকারের কৃতিত্ব রয়েছে কোর্টনি ওয়ালশের। সে রেকর্ড ভেঙে যেতে পারে।

যুক্তরাজ্যের সাউদাম্পটনের প্রথম টেস্টে প্রথম ইনিংসে ২০৪ রানে গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ড। হোল্ডার ৬টি ও আরেক পেসার শ্যানন গ্যাব্রিয়েল ৪টি উইকেট নেন। গতকাল টেস্টের তৃতীয় দিন ছিল। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৪ উইকেটে ১৮৪ রান তুলেছে। ২০ রানে পিছিয়ে ছিল সফরকারীরা। ৬৫ রানে আউট হয়েছেন ক্রেইগ ব্রাথওয়েট। এছাড়া ক্যাম্পবেল ২৮, হোপ ১৬, ব্রুকস ৩৯ রানে আউট হয়েছেন। উইকেটে অপরাজিত ছিলেন চেজ ১৫ ও ব্ল্যাকউড ১২ রানে। লাঞ্চে গিয়েছিল ক্যারিবীয়রা ৩ উইকেটে ১৫৯ রানে।

ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ তিন টেস্টের সিরিজ খেলছে। পরের দুটি টেস্ট ম্যানচেস্টারে। ১৬ জুলাই দ্বিতীয় ও তৃতীয় টেস্টটি রয়েছে ২৪ জুলাই। করোনার কারণে বেশ সতর্কতার সাথে খেলা পরিচালনা করা হচ্ছে। এছাড়া ক্যাম্পবেল ২৮, হোপ ১৬, ব্রুকস ৩৯ রানে আউট হন।

advertisement
Evaly
advertisement