advertisement
advertisement

তারকাদের ঘরে করোনার হানা

জাহিদ ভূঁইয়া
১৪ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৪ জুলাই ২০২০ ০২:২৪
advertisement

 

সাধারণ মানুষ হোক কিংবা তারকা, রোগ থেকে নিস্তার নেই কারোরই। গত চার মাসের বেশি সময় ধরে বিশ্বজুড়ে করোনা যে প্রলয়নৃত্য শুরু করেছে, তার কবলে এবার বলিউড-ঢালিউড-টলিউড তারকাদের পরিবার। তাদের খবর নিয়েই আজকের এই আয়োজন।

 

গত ১১ জুলাই রাতে টুইট করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কথা জানান বলিউডের মেগাস্টার অমিতাভ বচ্চন। পরে জানা যায়, অভিষেক-ঐশ্বরিয়া-আরাধ্যর করোনা পরীক্ষার ফলও পজিটিভ। তবে জয়া বচ্চন, শ্বেতা নন্দা ও তার ছেলের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে এর পরই অমিতাভের বাড়ি জলসা সম্পূর্ণ সংক্রমণমুক্ত করা হয়। সংলগ্ন এলাকা পরিণত হয় কনটেইনমেন্ট জোনে। বাইরের কাউকে ঢুকতে কিংবা বেরোতে দেওয়া হচ্ছে না।

করোনা হানা দিয়েছে বলিউড তারকা রেখা ও অনুপম খেরের বাড়িতেও। মুম্বাইয়ে রেখার বাংলোর নিরাপত্তারক্ষীর কোভিট-১৯ পজিটিভ এসেছে। অন্যদিকে অনুপম খেরের মা দুলারি, ভাই রাজু খের, ভাবি রিমা ও ভাতিজি বৃন্দা এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে এক ভিডিও বার্তায় অনুপম খের নিজেই তাদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছেন। অমিতাভ বচ্চনের করোনা আক্রান্ত হওয়ার দিনে বলিউড অভিনেত্রী ও মডেল র‌্যাচেল হোয়াইট জানান, কোভিট-১৯ পজিটিভ তারও। এর আগের দিন অর্থাৎ ১০ জুলাই সপরিবারে করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর জানান টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী কোয়েল মল্লিক। টুইটারে তিনি লেখেনÑ ‘বাবা, মা, রানে ও আমি কোভিট পজিটিভ। স্বেচ্ছায় কোয়ারেন্টিনে।’ ৮ জুলাই মল্লিক পরিবারের সবার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। দুদিন পর পজিটিভ রিপোর্ট আসে তাদের। গেল মে মাসের ৫ তারিখ পুত্রসন্তানের জন্ম দেন কোয়েল। তার সদ্যোজাত সন্তান করোনায় আক্রান্ত কিনা, সে ব্যাপারে কিছু জানাননি অভিনেত্রী।

করোনার ভয়াল থাবা পড়েছে ঢালিউডেও। কোভিড-১৯ পজিটিভ এসেছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী তমা মির্জাসহ পুরো পরিবারের। ১০ জুলাই রাতে মুঠোফোনে খবরটি জানান তিনি। তমা বলেন, ‘বাবা, আমার ও ড্রাইভারের করোনা পজিটিভ। মা আর ছোট ভাইয়ের সব উপসর্গ থাকার কারণে বাড়তি আর পরীক্ষা করায়নি।’

করোনা ভাইরাসের ক্ষেত্রে উপসর্গহীন বহনকারীর দৃষ্টান্ত দিন দিন বাড়ছে। কোয়েল মল্লিক, তার বাবা ও মায়ের উদাহরণটি তেমনই। সে ক্ষেত্রে রিপোর্ট হাতে না আসা পর্যন্ত রোগীর পক্ষে বোঝা সম্ভব নয়; কিন্তু তারকারা যেভাবে করোনার বিরুদ্ধে সতর্কতামূলক প্রচার চালিয়েছেন বা চালাচ্ছেন, ব্যক্তিজীবনে তারা কি সেগুলো পালন করছেন? টলিউডের কয়েকটি ঘটনা অবশ্য তা বলছে না। ইন্ডাস্ট্রির অন্দরের খবর, নেটফ্লিক্সের ছবি ‘বুলবুল’-এর ‘সাকসেস পার্টি’ নিজের বাড়িতে দিয়েছিলেন পাওলি দাম। যদিও সেখানে তার পরিবারের লোকজনই বেশি ছিলেন বলে শোনা গেছে। ছিলেন ইন্ডাস্ট্রির বেশ কয়েকজন। এই বিষয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম পাওলির সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। টলিউডের আরেক তারকা রুদ্রনীল ঘোষ এক বন্ধুর জন্মদিন উদযাপনের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় দিয়েছেন। মাস্ক বা ফেসশিল্ড থাকলেও এই জমায়েত কি করার কথা?

এদিকে ‘হইচই’-এর ওয়েব সিরিজ ‘মিসম্যাচ সিজন থ্রি’র শুটিং শেষ হওয়ার পর মুখ্য অভিনয়শিল্পীরা একসঙ্গে পার্টি করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এই সিরিজের জন্যই র‌্যাচেল হোয়াইট মুম্বাই থেকে এসেছিলেন কলকাতায়। ডায়মন্ড হারবারে নয় দিনের আউটডোর শুটিং ছিল তাদের। শহরের বাইরে থেকে আসায় র‌্যাচেলের সংক্রমিত হওয়ার প্রবণতা অন্যদের তুলনায় বেশি ছিল, তা বলাই যায়। অভিনেত্রী বলেন, ‘আমার অ্যান্টিবায়োটিকের কোর্স চলছিল। মুম্বাইয়ের চিকিৎসক বলেন, এখানে টেস্ট করিয়ে নিতে। তাই টেস্ট করাই। শুটিংয়ে কোনো শরীর খারাপ হয়নি।’ পার্টি করেছিলেন কি? এই প্রশ্নের উত্তরে র‌্যাচেলের পাশ কাটানো জবাবÑ ‘আমি এত অসুস্থ ... এখনো শকের মধ্যে রয়েছি।’ সিরিজটির অভিনেতা রাজদীপ গুপ্তের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। পার্টি করার প্রশ্নে তার ভাষ্যÑ ‘শুটিংয়ের শেষ দিন র‌্যাচেল, পায়েল, প্রিয়াঙ্কা, অভিষেক ও আমি একসঙ্গে মেকআপরুমে ডিনার করেছিলাম। সেটাকে পার্টি বলা হচ্ছে কেন, জানি না।’

বিপরীত চিত্রও কিন্তু রয়েছে। করোনা শুরু হওয়ার পর থেকেই তারকারা যেভাবে স্বাস্থ্যকর্মী, প্রশাসন ও অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছেনÑ সেগুলোও প্রশংসার দাবি রাখে। এ ক্ষেত্রে অমিতাভ বচ্চনের কথাই সবার আগে বলা যায়। প্রথম থেকেই সবাইকে সচেতন থাকার পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছিলেন। আর নিজে করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর গত দশ দিনে যারা যারা তার সংস্পর্শে এসেছিলেন, সবাইকে টেস্ট করানোর আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, বলিউডে এর আগে কণিকা কাপুর ও কিরণ কুমার করোনায় আক্রান্ত হন। এ ছাড়া রিপোর্ট পজিটিভ আসে আমির খান, করণ জোহর, জাহ্নবী কাপুরদের বাড়ির সহকারীদেরও। আর জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক ওয়াজিদ খান মারা যাওয়ার পর জানা যায়, তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন।

 

advertisement