advertisement
advertisement

ঘরের ঈদে এমন সাজ

এমি জান্নাত
১৫ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৪ জুলাই ২০২০ ২২:৫০
advertisement

প্রতিবারের চেয়ে এবারের ঈদটা একটু আলাদা। করোনা

ভাইরাসের প্রভাবে আগের বছরগুলোর মতো বাইরে যাওয়ার তাড়া নেই। তবু ঈদ মানেই খুশি, আর খুশির এই দিনে মন খারাপ করে না থেকে ঘরেই সাজপোশাকে নিয়ে আসুন বৈচিত্র্য। ঘরে ঈদের সাজপোশাক নিয়ে ডিজাইনার ও বিউটি এক্সপার্টদের সঙ্গে

কথা বলে জানাচ্ছেন এমি জান্নাত

¯িœগ্ধতায় সকাল

এবার গরম আর বৃষ্টি, আবহাওয়ার এই দিক খেয়াল রেখে সকালের পোশাকটি হতে হবে আরামদায়ক। অঞ্জন’সের প্রধান নির্বাহী শাহীন আহম্মদ বলেন, বাইরে না গেলেও নিজেকে সুন্দর পোশাকে সাজিয়ে দিনটিকে আনন্দময় করে তুলুন। কারণ পোশাক ও সাজসজ্জা মানুষের মনকে একটু হলেও পরিবর্তন করে। এ সময় পোশাকটি পরুন সুতি বা ভয়েলের সালোয়ার-কামিজ বা কুর্তি, শর্ট কুর্তি, শর্ট হাতা কামিজ, ফতুয়া এগুলো। রঙ হিসেবে বেছে নিন অফ হোয়াইট, বিস্কিট, হালকা গোলাপি, আকাশি, লেমন, হালকা নীল, বাঙ্গী, হালকা বাসন্তীÑ এ রকম হালকা যে কোনো রঙ। সকাল ও দুপুরের সাজ নিয়ে বলেছেন শোভন মেকওভারের কসমেটোলজিস্ট শোভন সাহা। তিনি বলেন, ঘরে বসে ঈদ বলে মনটা একটু খারাপ থাকতেই পারে। তাই মন ভালো করতে হলেও যেমনটি ভালো লাগে সেভাবে নিজেকে সাজান। সকালের দিকে একটু ব্যস্ততা থাকে, তাই হালকা সাজেই ভালো লাগে। পোশাকের সঙ্গে মানানসই সিম্পল সাজেই নিজেকে সতেজ লাগবে। বেস মেকআপে শুধু কমপ্যাক্ট পাউডার দিয়ে তার ওপর ফেস পাউডার লাগিয়ে নিন। এ সময়টা আইশ্যাডো না দিয়ে শুধু কাজল লাগাতে পারেন চিকন করে। আইলাইনার দিলে ওয়াটার প্রুফ হলে ভালো হয়, যেন দুপুর বা বিকালের সাজে চোখের নিচে কালো ভাবটা না থাকে। লিপস্টিকের ক্ষেত্রে সকালের পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে হালকা শেডের যে কোনো লিপস্টিক ভালো লাগবে। সেটা হতে পারে মিষ্টি গোলাপি, বাদামি, কফি বা ন্যাচারাল রঙের লিপস্টিক। সকালে চুল স্ট্রেইট অথবা ব্লো ড্রাই করে রাখতে পারেন।

দুপুরে উৎসবের আমেজে

দুপুরের পোশাকটাও আরামদায়ক হলেই স্বাচ্ছন্দ্য আসবেÑ বলেন শাহীন আহম্মদ। আর গরমে আরামের দিকটি মাথায় রেখে এ পোশাকগুলো রেখেছি বিভিন্ন কাটিং ও প্যাটার্নে। সুতির ওপর হালকা কাজের অ্যামব্র?য়ডারি, গ্লসি কটন, মিক্সড কটন পোশাকও রয়েছে। সেগুলো পরতে পারেন দুপুরে। এতে পোশাক যেমন আরামদায়ক হবে, তেমনি নতুনত্বও বজায় থাকবে। কেউ চাইলে লিলেনও বেছে নিতে পারেন। তবে অবশ্যই একটু ঢিলেঢালা পোশাক বেছে নিন, যেন সেটি পরে আরামদায়ক হয় এবং চলাফেরায় স্বাচ্ছন্দ্য আসে। আর জমকালো পোশাকটি রেখে দিন সন্ধ্যা বা রাতের জন্য। দুপুরের সাজ নিয়ে শোভন সাহা বলেন, এবার সব কাজ শেষে ফ্রেশ হয়ে একটু ভারী মেকওভার হতেই পারে। এ সময় হালকা রঙের পোশাক ছেড়ে যদি রঙিন পোশাক বেছে নেন, তা হলে চোখে হালকা আইশ্যাডো লাগাতে পারেন। ফলস আইল্যাশও পরে নিতে পারেন এ সময়। কপালে পরতে পারেন ছোট্ট একটি টিপ। দুপুরে চাইলে চুলটা কার্ল অথবা টুইস্ট করে নিতে পারেন। ছেড়ে না রেখে খোঁপা বা বেণি করে বেঁধে ফেললেও আরামদায়ক হবে।

জমকালো সন্ধ্যা

রাতের সাজটা একটু জমকালো করেই সুন্দর ও আকর্ষণীয় হয়ে উঠতে পারেন। ঘরে ঈদ কাটাব বলে তো সাজপোশাকে আপস করলে হবে না। তাতে আরও একঘেয়ে লাগবে। এ বিষয়ে রঙ বাংলাদেশের স্বত্বাধিকারী সৌমিক দাস বলেন, এবার ঈদ যেমন গরমে পড়ে গিয়েছে, তেমনি রয়েছে বৃষ্টি। তাই আমরা সব পোশাকের স্টাইলে ভিন্নতার পাশাপাশি আরামের দিকটি খেয়াল রেখেছি। ঈদের দিনটি সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত সবারই ব্যস্ততায় কাটে। তার পর আসে সন্ধ্যায় জমিয়ে সাজগোজের পালা। এবার ঈদে ঘুরতে যাওয়া নেই, দাওয়াত নেই তাই ছবি তোলার জন্য হলেও সন্ধ্যার সাজে একটু পার্টি ভাব আনতেই পারেন। সে ক্ষেত্রে সাজপোশাকটা একটু জমকালো হলে ভালো লাগে। তখন একটু গর্জিয়াস পোশাকটিই পরবে সবাই। এর মধ্যে গাউন, লং কুর্তি, বাহারি ডিজাইনের শাড়ি পরতে পারেন। সেটা মাথায় রেখেই আমাদের এক্সক্লুসিভ কালেকশনগুলোই রাখা হয়েছে, যেন সবাই সন্ধ্যার পর পরতে পারে। এই পোশাকগুলোয় একটু গাঢ় রঙ ব্যবহার করা হয়েছে। এগুলো সুতি না হয়ে মসলিন, সিল্ক এবং জর্জেট হলে বেশ উজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত লাগে। আসলে সারাদিন ব্যস্ততার পর সাজসজ্জার ব্যাপারটাই আসে বিকালে। তাই সকাল বা দুপুরে হালকা সাজপোশাকে থাকলেও বিকালেই সবাই ঈদের জন্য কেনা জমকালো ড্রেসটি পরার অপেক্ষায় থাকে। সন্ধ্যার সাজ নিয়ে রেড বিউটি পার্লারের রূপ বিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীন বলেন, সন্ধ্যার সাজটি সবসময় একটু ভারী হলেই ভালো লাগে। যেহেতু পোশাকটি গর্জিয়াস থাকে, তাই সাজটিও তার সঙ্গে মানানসই হতে হয়। আর চোখের সাজটি বেশি নজর কাড়ে, তাই সেটি আকর্ষণীয় করে তুলুন। এবার মেকআপ শেষ করে হালকা ব্লাসন, হাইলাইটার ব্যবহার করতে পারেন। আর চুলটা কার্ল করতে পারেন বা এখন বিভিন্ন হেয়ারস্টাইল করছে সবাই। মুখের সঙ্গে মানিয়ে যায় এ রকম যে কোনো একটা হেয়ারস্টাইল করতে পারেন। যেহেতু এবার ঈদ ঘরে কাটছে, তাই সন্ধ্যায় জমকালো সাজে নিজেকে সাজিয়ে মনটাকে চাঙ্গা করে তুলুন।

advertisement