advertisement
advertisement

উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু আরও ৭ জনের

আমাদের সময় ডেস্ক
১৬ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৫ জুলাই ২০২০ ২৩:৩২
advertisement

করোনার উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে কুমিল্লায় ৪ জন এবং সাতক্ষীরা, বগুড়া ও চাঁদপুরে ১ জন করে মারা যান। মৃত সবার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরÑ

বগুড়া : বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে করোনার উপসর্গে আব্দুর রশিদ নামে এক ব্যক্তি বুধবার সাড়ে ১২টার দিকে তিনি মারা যান। তার বাড়ি সোনাতলা উপজেলার নীলকণ্ঠপুর এলাকায় হলেও তিনি শহরের মালগ্রাম এলাকায় থাকতেন। তিনি নন্দীগ্রাম উপজেলা ট্রেজারি অফিসের অবসরপ্রাপ্ত হিসাব কর্মকর্তা।

কুমিল্লা : কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ

(কুমেক) হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে এক নারীসহ আরও চারজনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালের করোনা ইউনিটের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান। বুধবার সকালে হাসপাতালের সহকারী সার্জন ডা. মোয়াজ্জেম এসব তথ্য জানান। এর মধ্যে আইসিইউতে মারা যান দেবিদ্বার উপজেলার আবদুল্লাহপুর গ্রামের আবদুল গফুর, লালমাই উপজেলার জয়নাল আবেদিনের ছেলে মফিজুর ইসলাম, লাকসাম উপজেলার ইব্রাহিম খলিলের ছেলে আবদুর গফুর ও নাঙ্গলকোট উপজেলার ইয়াহিয়ার মেয়ে জাহারা খাতুন। এ নিয়ে এই হাসপাতলে করোনা ইউনিটে পজিটিভ ও উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন ২০৭ জন। এদের মধ্যে করোনা পজিটিভ ৬৮ জন ও করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান ১৩৯ জন।

সাতক্ষীরা : করোনা ভাইরাসের উপসর্গ জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার এক ব্যক্তি মারা গেছেন। গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে সাতক্ষীরা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে তার মৃত্যু হয়। তার নাম আতাউর রহমান। তিনি সদর উপজেলার ছয়ঘরিয়া গ্রামের কৃষক।

চাঁদপুর : চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে করোনা উপসর্গ নিয়ে লিটন সূত্রধর নামে এক ব্যক্তি মারা গেছেন। গতকাল বুধবার সকাল পৌনে ৭টায় হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। লিটনের বাড়ি হাজীগঞ্জ উপজেলার বাকিলা ইউনিয়নের উচ্চংগা গ্রামে।

advertisement