advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তার হুমকি!

চট্টগ্রাম ব্যুরো
১৬ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৬ জুলাই ২০২০ ০০:২৫
advertisement

চট্টগ্রাম নগরীর বন্দর থানা এলাকায় রাতের আঁধারে একটি গার্মেন্টস এক্সেসরিজ প্রতিষ্ঠানে গিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও হুমকি দেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও বন্ড কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে। গত মঙ্গলবার রাতে দক্ষিণ মধ্যম হালিশহর এলাকায় ইহসান এন্টারপ্রাইজ প্রতিষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটেছে। বেআইনি প্রবেশের ঘটনায় বন্দর থানায় জিডি করেছেন প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ কিবরিয়া (৩৬)। প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে গতকাল বুধবার সভা করেছে বন্ড প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ক্ষুব্ধ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। চট্টগ্রাম বন্ড কমিশনারেট কার্যালয়ের সামনে কাস্টম বন্ড কমার্শিয়াল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের ব্যানারে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জানা গেছে, সেখানে রাত ৯টায় ২০ থেকে ২৫ জনের দল নিয়ে কারখানা পরিদর্শনে যান শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক কাওছার পাটোয়ারি। বেআইনিভাবে রাতের অন্ধকারে গিয়ে প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের হুমকি ধমকি দেন। তাদের লেখা কয়েকটি কাগজে জোরপূর্বক স্বাক্ষর করতে বাধ্য করেন।

ইহসান এন্টারপ্রাইজের ম্যানেজার মোহাম্মদ কিবরিয়ার অভিযোগ, মঙ্গলবার রাত ৯টায় ২০ থেকে ২৫ জন লোক নিয়ে কারখানার ভেতর প্রবেশ করেন। সেখানে প্রায় দুই ঘণ্টা অবস্থান করে তাদের লেখা কয়েকটি কাগজে আমাকে স্বাক্ষর করতে বাধ্য করে। প্রতিবাদ করলে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ, আমাকে এবং প্রতিষ্ঠানের মালিককে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়।

শুল্ক গোয়েন্দা তদন্ত অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক কাউছার পাটোয়ারি আমাদের সময়কে বলেন, আকস্মিক পরিদর্শনে গেছি। তাদের সহায়তায় পণ্যের স্টক তালিকা নিয়ে এসেছি। অসামঞ্জস্যতা আছে কিনা তা দেখছি। ভয়ভীতি ও মারধরের চেষ্টার বিষয়ে তিনি বলেন, মার খায় নায় তো! আমাদের অসহযোগিতা করেছে।

আমরা ১৫-২০ জনের ব্যাকআপ নিয়ে গেছি। তারা তো আসমানের দিকে তাকিয়ে থাকেনি। আহত নিহত হয়নি।

এদিকে প্রতিষ্ঠানে গিয়ে কর্মকর্তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও হুমকি দেওয়ার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবি জানিয়েছে চট্টগ্রাম কাস্টমস বন্ড কমার্শিয়াল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন। সভায় বক্তারা বলেন, পোশাক রপ্তানির সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করে গার্মেন্টস এক্সেসরিজ প্রতিষ্ঠানগুলো। সরকারি রেজিস্ট্রেশনপ্রাপ্ত এসব প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার আগে কর্তৃপক্ষকে জানাতে হয়। কোনো ধরনের নোটিশ ছাড়া রাতের আঁধারে ২০ থেকে ২৫ জন লোক নিয়ে পরিদর্শনের নামে ব্যবসায়ীদের অপদস্ত করা হচ্ছে। দালাল নিয়ে গড়ে ওঠা সিন্ডিকেটের অবৈধ বাণিজ্য রক্ষায় সনামধন্য প্রতিষ্ঠানে এ ধরনের অভিযান চালানো হচ্ছে।

সভায় বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম কাস্টমস বন্ড কমার্শিয়াল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সম্পাদক আনিছুর রহমান, সহ-সম্পাদক রুবেল দে, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুব আলম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মোহাম্মদ কিবরিয়া, মোহাম্মদ সুজন, মোহাম্মদ রফিক, টানু চক্রবর্তী প্রমুখ।

advertisement