advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সব খবর

advertisement

হিলির আকর্ষণ ‘বিন লাদেন’

মিজানুর রহমান মিজান হিলি
১৬ জুলাই ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৬ জুলাই ২০২০ ০০:২৫
advertisement

ওসামা বিন লাদেন। বিশ্বব্যাপী এক আলোচিত ও সমালোচিত ব্যক্তিত্ব। পশ্চিমা বিশ্বে যতই নিন্দনীয় হন না কেন, অনেক দেশের অনেকেই সন্তানের নাম রেখেছেন ‘লাদেন’। কিন্তু তাই বলে গরুর নাম! হ্যাঁ, দিনাজপুরের হিলির ছাতনী গ্রামের সফল গরু খামারি মাহফুজার রহমান বাবু তার গরুর নাম রেখেছেন ‘বিন লাদেন’।

উপজেলা সদর থেকে প্রায় সাত কিলোমিটার দূরে ছাতনী গ্রামে বাবুর খামারে সরেজমিন দেখা যায়, কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে দেশি ও বিদেশি জাতের কয়েকটি গরু লালন-পালন করছেন তিনি। তবে চোখে পড়ে সাদা রঙের একটি বড় আকারের গরু। এর সর্ম্পকে জানতে চাইলে খামারি বাবু বলেন, শখের বসে নাম রেখেছি ‘বিন লাদেন’। এটার দাম চাচ্ছি ১৫ লাখ টাকা, সাথে ফ্রি থাকছে দেশীয় প্রজাতির একটি ষাঁড়।

মাহফুজার রহমান বাবু জানান, আমার শখ ছিল কোরবানি ঈদ উপলক্ষে বড় একটি গরু লালন-পালন করব। চার বছর আগে স্থানীয় প্রাণিসম্পদ অফিসের সহযোগিতায় খামারের একটি গরুর গর্ভে দেওয়া হয় ব্রাহমা জাতের বীজ। এটি জন্ম হওয়ার পর থেকেই সম্পূর্ণ দেশীয় ও প্রাকৃতিক খাবার দিয়ে লালন-পালন করে আসছি। সাদা-কালো বর্ণের ব্রাহমা জাতের ‘বিন লাদেনের’ উচ্চতা ৫ ফুট ৩ ইঞ্চি, লম্বায় ১১ ফুট ৬ ইঞ্চি, ওজন প্রায় ১১০০ কেজি। বাবুর দাবি, উত্তরবঙ্গের সবচেয়ে বড় আকারের গরু এটি। তবে এখন পর্যন্ত কোনো ক্রেতার সাড়া না পাওয়ায় হতাশ তিনি। হাকিমপুর প্রাণিসম্পদ অফিসের ভেটেরিনারি সার্জন রতন কুমার জানান, উপজেলাব্যাপী সাড়া ফেলে দিয়েছে ‘বিন লাদেন’। আসলেই দেখার মতো গরু হয়েছে। আমাদের পক্ষ থেকে এর সার্বক্ষণিক চিকিৎসাসহ বিভিন্ন ধরনের পরার্মশ দিয়েছি খামারিকে। গরুটি অনেক বড় এবং বেশি ওজনের। তাই স্থানীয়ভাবে বিক্রি না হলেও ঢাকায় এ ধরনের গরু বিক্রি ভালো হয়। আমরা চেষ্টা করছি ঢাকার ক্রেতার সাথে যোগাযোগের মাধ্যমে গরুটি বিক্রির করার জন্য, যাতে আমাদের খামারি তার কাক্সিক্ষত দাম পান।

advertisement