advertisement
Azuba
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

তারেকের নির্দেশে ইতালির গণমাধ্যমে বিএনপি নেতার বক্তব্য, বিপাকে বাংলাদেশিরা (ভিডিও)

প্রবাস ডেস্ক
১৮ জুলাই ২০২০ ১৩:৩৭ | আপডেট: ১৮ জুলাই ২০২০ ১৩:৪৫
শাহ তাইফুর রহমান ছোটন (বামে) ও তারেক জিয়া
advertisement

ইতালিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপের জন্য ইতালি প্রবাসী বিএনপিপন্থী নেতা শাহ তাইফুর রহমান ছোটনকে দায়ী করছেন প্রবাসীরা।

প্রবাসী বাংলাদেশিরা বলছেন, ইতালিতে বাংলাদেশিদের সাময়িক সময়ের জন্য প্রবেশ নিষিদ্ধ হওয়ার অন্যতম কারণ হচ্ছেন শাহ তাইফুর রহমান ছোটন। যিনি বিএনপির ইতালি শাখার সাবেক সভাপতি। বাংলাদেশ সরকারকে দুর্নীতিবাজ প্রমাণ করার জন্য ইতালির সংবাদমাধ্যমকে একটি সাক্ষাৎকারও দিয়েছেন তিনি।

সাক্ষাৎকারে বিএনপির এই নেতা বলেছেন, ‘যেসব বাংলাদেশি ইতালি আসছে- তাদের সবার কাছে ভুয়া করোনা রিপোর্ট রয়েছে এবং এরকম প্রায় ১০ হাজার লোক ইতালি আসার পথে আছে।’

তার এই সাক্ষাৎকারের পর থেকেই নড়েচড়ে বসে ইতালি সরকার। মূলত এই বিএনপি নেতার গণমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারের পর থেকেই ইতালি সরকার প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেশটিতে প্রবেশে কড়াকড়ি আরোপ করে।

প্রবাসীরা মনে করছেন, বিএনপির পলাতক নেতা তারেক জিয়ার নির্দেশে ইতালি বিএনপির এই নেতা বাংলাদেশ সরকারকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বিতর্কিত করার জন্য এ ধরনের মিথ্যা প্রপাগাণ্ডা ছড়াচ্ছেন। অথচ তার সাক্ষাৎকার দেওয়ার আগ পর্যন্ত ইতালি সরকার বাংলাদেশিদের কাছে কোনো প্রকার করোনা সনদই চায়নি।

ইতালি প্রবাসী বিএনপির এই নেতা ইতালির গণমাধ্যমে যা বলেছিলেন, তার অনুবাদ করে তুলে ধরা হলো:

শাহ তাইফুর রহমান বলেন, ‘বাংলাদেশে প্রায় ১০ হাজার প্রবাসী রয়েছে যারা ইতালি আসতে চায়। কারণ, আমরা ধারণা করি ১০ লাখের বেশি বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এবং সেখানে কোনো প্রকার চিকিৎসা ব্যবস্থা নেই। বাংলাদেশ একটা দোজখে পরিণত হয়েছে। সেই দোজখ থেকে ১০ হাজার প্রবাসী পালিয়ে ইতালি এসে বাঁচতে চায়। তাই ইতালির উচিত তাদের গ্রহণ করা। তা না করা হলে তারা দোজখে ছটফট করে মারা যাবে। এটা ঠিক হবে না। ইতালির উচিত এদের আসতে দেওয়া, যেভাবে ২৮০ জনকে হিলটন হোটেলে রেখেছে সেভাবে রাখা।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেড় দুই লাখ টাকা খরচ করে যারা আসছে, তারা ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকার টাকা হোটেল বুকিং দিয়েও আসতে পারবে। তাছাড়া যেহেতু সরকার টাকা দিচ্ছে কোভিডের সেই টাকা দিয়েও কোয়ারেন্টিনে রাখা যায়। কিন্তু তাদের আসতে দিতে হবে দোজখ থেকে এটা সরকারের কাছে বাংলাদেশিদের আপিল।’

এদিকে প্রবাসীরা অভিযোগ করেছেন, বিএনপির এই নেতা বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশ সরকারকে ব্যর্থ প্রমাণ করতে গিয়ে ইতালিতে বসবাসকারী প্রায় ২ লাখ বাংলাদেশির ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তার মুখে ফেলেছেন। ইতালিতে বাংলাদেশিদের সাময়িক সময়ের জন্য প্রবেশ নিষিদ্ধ হওয়ার অন্যতম কারণ হচ্ছে ইতালি প্রবাসী বিএনপিপন্থী নেতা শাহ তাইফুর রহমান ছোটন, যিনি বিএনপির ইতালি শাখার সাবেক সভাপতি।

এদিকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত বাংলাদেশিদের ইতালিতে প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

ইতালির লেগা নর্দ দলের নেতা মাতেও সালভিনি তার ফেসবুকে ভিডিওটি শেয়ার করে লেখেন, ‘পাগল করা জিনিস।’

ইতালি আওয়ামী লীগের সভাপতি ইদ্রিস ফরাজী ও সাধারণ সম্পাদক হাসান ইকবাল এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ইতালি বিএনপির সভাপতি শাহ তাইফুর রহমান ছোটনের স্থানীয় পত্রিকায় দেওয়া সাক্ষাৎকার সম্পূর্ণ দেশবিরোধী। তার এ বক্তব্যের কারণেই ইতালিতে দীর্ঘদিন ধরে সুনামের সাথে বসবাস করা বাংলাদেশিদের আজ অন্য নজরে দেখা হচ্ছে। তারা বিএনপি নেতার এ ধরনের বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানান।

এ বিষয়ে জানতে ইতালি বিএনপির সাবেক সভাপতি শাহ তাইফুর রহমান ছোটনকে কয়েকবার ফোন করা হলে তিনি কল কেটে দেন।

এদিকে শাহ তাইফুরের বক্তব্যে ইতালির সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চলছে সমালোচনার ঝড়। ইতালি প্রবাসী বাংলাদেশিরা এর প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। শাহ তাইফুর রহমান ছোটনের এ ধরনের বক্তব্যের প্রতিবাদ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করছেন ইতালি প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

শাহ তাইফুর রহমান ছোটনের বক্তব্যের ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

advertisement