advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

যৌতুকের একটি নাকফুলের জন্য গৃহবধূকে হত্যা!

৭ আগস্ট ২০২০ ০০:০৮
আপডেট: ৭ আগস্ট ২০২০ ০১:২৮
advertisement

গাইবান্ধা সদর উপজেলায় যৌতুকের একটি নাকফুলের জন্য শ্বশুর বাড়ির লোকদের নির্যাতনে প্রাণ হারিয়েছেন সুমাইয়া আকতার সেতু নামে এক গৃহবধূ। আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে সদর উপজেলার খোলাহাটি ইউনিয়নের উত্তর খোলাহাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের স্বজন ও প্রতিবেশীরা জানান, আজ বেলা ১১ টার দিকে যৌতুকের নাকফুল দেওয়া নিয়ে স্বামী সুজা মিয়ার সঙ্গে তার স্ত্রী সেতুর ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে স্বামী ও বাড়ির লোকজন মিলে সেতুকে মারধর করে ও পরে গলা টিপে হত্যা করে। অবস্থার বেগতিক দেখে বাড়ির লোকজন সেতুর লাশ আঙ্গিনায় ফেলে পালিয়ে যায়।  

হঠাৎ বাড়ির লোকের সারা শব্দ না পেয়ে আশে পাশের লোকজনের সন্দেহ হলে তারা ওই বাড়িতে যেয়ে গৃববধূ সেতুকে মাটিতে পড়ে থাকতে দেখেন। পরবর্তীতে প্রতিবেশীরা খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে গৃহবধূর সেতুল লাশ উদ্ধার করে।

নিহত গৃহবধূ সেতুর বাবা শাহিন মিয়া অভিযোগ দিলে পুলিশ নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য গাইবান্ধা হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

শাহিন মিয়া বলেন, এক বছর আগে তার মেয়ে সেতুর সাথে সুজার বিয়ে হয়। বিয়ের সময় যৌতুক হিসাবে টাকাসহ অন্যান্য সরঞ্জামও দেয়া হয়। বাকি থাকে শুধু একটি নাকফুল। নাকফুলটি নিয়ে দুজনের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে ঝগড়া হয়। তাকে এই নাকফুলের জন্য হত্যা করা হয়েছে।

গাইবান্ধা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খান মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, ধারণা করা হচ্ছে সেতুকে হত্যা করে ফেলে রেখে পালিয়ে গেছে তার শ্বশুর বাড়ির লোকেরা।

নিহতের গলাসহ বিভিন্নস্থানে ক্ষত চিহ্ন দেখা গেছে জানিয়ে ওসি বলেন, ময়না তদন্ত শেষ হলে মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হবে।

advertisement
Evaly
advertisement