advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

সিরাজগঞ্জে ডায়গনস্টিক সেন্টারে মেয়াদোত্তীর্ণ ‘রিএজেন্ট’ দিয়ে পরীক্ষা

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি
৮ আগস্ট ২০২০ ২৩:০৯ | আপডেট: ৮ আগস্ট ২০২০ ২৩:৪৩
advertisement

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে চলনবিল ডায়গনস্টিক সেন্টারে মেয়াদোত্তীর্ণ পরীক্ষা-নিরীক্ষার মেডিসিন (রিএজেন্ট) ব্যবহার করে রিপোর্ট প্রদানের অভিযোগ উঠেছে। আজ শনিবার এমন প্রতারণার বিষয়টি চাউর হয়।

জানা গেছে, আজ বেলা ১১টার দিকে উপজেলা ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের পাশে চলনবিল ডায়গনস্টিক সেন্টারে পরিদর্শনে যান হাসপাতালের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মো. জামাল মিঞা শোভন। এ সময় তিনি ওই ডায়গনস্টিক সেন্টারে প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র ও পরীক্ষা নিরীক্ষার রিএজেন্ট তদারকি করতে থাকলে প্রেগনেন্সি টেস্টের মেয়াদোত্তীর্ণ রিএজেন্ট বেরিয়ে আসে। এ ছাড়া ডায়গনস্টিক সেন্টার অনুমোদনের কাগজপত্র চেয়ে পাননি ওই স্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

স্থানীয়দের অভিযোগ, অনুমোদনহীন ওই ডায়গনষ্টিক সেন্টার মেয়াদোত্তীর্ণ রিএজেন্ট দিয়ে ভুয়া রিপোর্ট প্রদান করে দীর্ঘদিন যাবৎ রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছে। আড়ংগাইল গ্রামের আসাদ আলী অভিযোগ করে জানান, গত ১৩ জুলাই চলনবিল ডায়গনস্টিকসে তার স্ত্রীর গর্ভকালীন পরীক্ষা করালে নেগেটিভ রেজাল্ট আসে। ঠিক তার ২দিন পরেই বগুড়ায় পপুলার ডায়গনস্টিক সেন্টারে তা পজিটিভ রেজাল্ট আসে।

জামাল মিঞা শোভন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন ,‘চলনবিল ডায়গনষ্টিক সেন্টারে মেয়াদোত্তীর্ণ রিএজেন্ট পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে তারা অনুমোদনের কোনো কাগজপত্রাদি দেখাতে পারেনি। ওই ডায়গনষ্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে প্রযোজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

চলনবিল ডায়গনস্টিক সেন্টারের স্বতাধিকারী বদিউজ্জামান বদির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ প্রসঙ্গে কথা বলতে রাজি হননি।

advertisement
Evaly
advertisement