advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

বৈরুতে বিস্ফোরণের ব্যাপারে জুলাইয়েই সতর্ক করা হয়েছিল

অনলাইন ডেস্ক
১১ আগস্ট ২০২০ ১২:২২ | আপডেট: ১১ আগস্ট ২০২০ ১৫:০১
বৈরুতে বিস্ফোরণের পর এভাবে পড়ে ছিল কয়েকটি গাড়ি
advertisement

লেবাননের প্রধানমন্ত্রী এবং প্রেসিডেন্টকে গত জুলাই মাসে বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ নিয়ে সতর্ক করা হয়েছিল। একটি চিঠির মাধ্যমে দেশের প্রধান দুই শাসককে এ সতর্কবার্তা দেওয়া হয়।

লেবাননের নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এমনটি দাবি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, গত ২০ জুলাই লেবাননের রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা বিষয়ক অধিদপ্তর থেকে প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন এবং প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াবকে একটি চিঠি পাঠানো হয়। তবে, ওই চিঠিতে কী ছিল সে বিষয়ে এখনো নিশ্চিত করে কিছু জানা যায়নি।

দেশটির একজন জ্যেষ্ঠ নিরাপত্তা কর্মকর্তা দাবি করে বলেছেন, ওই চিঠিতে ‘অবিলম্বে’ রাসায়নিক পদার্থগুলোকে সুরক্ষিত করার তাগিদ দেওয়া হয়েছিল।

লেবাননের নিরাপত্তা বিভাগের কর্মকর্তাদের আশঙ্কা ছিল, রাসায়নিকগুলো চুরি হয়ে যেতে পারে। যা দিয়ে যে কেউ সন্ত্রাসী হামলা চালাতে পারতো। এ নিয়ে তদন্তের পর একটি চূড়ান্ত প্রতিবেদন সরকারের কাছে পাঠানো হয়েছিল। সেখানে বিস্ফোরণ ঘটলে বৈরুত ধ্বংস হয়ে যাবে বলে উল্লেখ ছিল।

রয়টার্স বলছে, সরকারকে সতর্ক করার দুই সপ্তাহের মধ্যে লেবাননের রাজধানী বৈরুতের বন্দরে ২ হাজার ৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের বিস্ফোরণ ঘটে।

বিস্ফোরণের এ ঘটনায় কমপক্ষে ১৬৩ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৬ হাজারের বেশি মানুষ। এছাড়া, প্রায় ৬ হাজারের মতো ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এদিকে, এ ঘটনার জেরে সাধারণ মানুষের অব্যাহত বিক্ষোভের মুখে দেশটির সরকার পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছে। এর আগে দেশটির দুজন মন্ত্রী ও ৯ এমপি পদত্যাগ করেন। তাদের অভিযোগ, সরকার সুযোগ থাকার পরও কাজ করেনি।

advertisement
Evaly
advertisement