advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

জাতীয় শোক দিবসে ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল

নিজস্ব প্রতিবেদক
১৫ আগস্ট ২০২০ ১৮:৫৮ | আপডেট: ১৫ আগস্ট ২০২০ ১৮:৫৮
advertisement

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর (ডিআইপি) আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। আজ শনিবার সকালে রাজাধানীর আগারগাঁও এ অবস্থিত প্রধান কার্যালয়ে এ আয়োজন করা হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আইয়ূব চৌধূরী পিবিজিএমএস, এনডিসি, পিএসসি।

ডিআইপির অতিরিক্ত মহাপরিচালক এটিএম আবু আসাদের সভাপতিত্বে ও উপপরিচালক মো. হাফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য প্রদান করেন ই-পাসপোর্ট ও স্বয়ংক্রিয় বর্ডার নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা শীর্ষক প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুর রহমান খান, পিএসসি, এনডিসি, টিই ও বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিস আগারগাও এর পরিচালক জনাব মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন প্রধান কার্যালয়ের পরিচালক জনাব মো. সাঈদুল ইসলাম, সিস্টেম এনালিস্ট জনাব মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম ভূঞা প্রমুখ।

শোক দিবস অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন, একটা জাতি বেঁচে থাকতে হলে মনোবল দরকার। আর দরকার একটি উন্নত ইতিহাস ও একজন অসামান্য রাষ্ট্রনায়কের। এসব গুণাবলি ছিল একজন মহানায়কের। তিনি হলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, যার নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হয়। সদ্য স্বাধীন দেশ কীভাবে বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে সেসব পরিকল্পনাই তিনি করেছিলেন। দেশ পরিচালনায় বঙ্গবন্ধু ছিলেন একজন সৎ, দক্ষ ও দূরদৃষ্টিসম্পন্ন রাজনৈতিক নেতা ও প্রশাসক।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুর রহমান খান পিএসসি, এনডিসি, টিই বলেন, বাংলার এই ভূখণ্ডে বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা আর আসেনি। বঙ্গবন্ধু এমন একজন নেতা ও মহাপুরুষ যার সম্পর্কে কথা বলা ও মূল্যায়ন আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়। তিনি না হলে এই দেশ, এই পতাকা কিছুই আমরা পেতাম না।

সভাপতির বক্তব্যে এডিজি এ, টি, এম আবু আসাদ বলেন, বাংলাদেশেকে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর যে স্বপ্ন ছিল, সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন হলে বাংলাদেশ একটি সুখী ও সমৃদ্ধশালী দেশে পরিণত হবে। সরকারী কর্মচারী হিসেবে আমাদের সততার সাথে দায়িত্ব পালন করলে তার প্রতি সম্মান যথাযথ দেখানো হবে।

শোক দিবসের আলোচনার আগে, ডিআইপি মহাপরিচালকের নেতৃত্বে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে ডিআইপি’র প্রধান কার্যালয়ের সামনে বৃক্ষরোপণ করা হয়।

advertisement
Evaly
advertisement