advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

তালতলা কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন সাদেক বাচ্চু

বিনোদন প্রতিবেদক
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৫:৫৮ | আপডেট: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৮:১১
সাদেক বাচ্চু। পুরোনো ছবি
advertisement

রাজধানীর খিলগাঁওয়ের তালতলা কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন বর্ষীয়ান অভিনেতা সাদেক বাচ্চু। আজ বাদ আসর তার দাফন সম্পন্ন হবে। এর আগে, তালতলা কবরস্থান সংলগ্ন মসজিদে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এমনটাই জানিয়েছেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।

দৈনিক আমাদের সময় অনলাইনকে তিনি বলেন, ‘বিকেল ৩টার দিকে বাচ্চু ভাইয়ের মরদেহ হাসপাতাল থেকে আল মারকাজুলে গোসলের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে তালতলায় নেওয়া হবে। বাদ আসর তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে তার মরদেহ তালতলা কবরস্থানে দাফন করা হবে।’

এদিকে, করোনা আক্রান্ত হয়ে সোমবার বেলা ১২টা ৫ মিনিটে রাজধানীর মহাখালীর ইউনিভার্সাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন বরেণ্য অভিনেতা সাদেক বাচ্চু। তার মৃত্যুতে শোবিজ অঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

উল্লেখ্য, সাদেক বাচ্চুর আসল নাম মাহবুব আহমেদ সাদেক। তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরে হলেও জন্ম ঢাকাতে। ‘চাঁদনী’ সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্র অঙ্গনে পা রাখেন জনপ্রিয় এই অভিনেতা। এর আগে ১৯৬৩ সালে খেলাঘরের মাধ্যমে রেডিওতে অভিনয় শুরু করেন তিনি। একইসঙ্গে মঞ্চেও কাজ শুরু করেন। তার প্রথম থিয়েটার ‘গণনাট্য পরিষদ।’ ১৯৭৪ সালে প্রথম টেলিভিশন নাটকে অভিষিক্ত হন তিনি।

তার উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে- জোর করে ভালোবাসা হয় না (২০১৩), জজ ব্যারিস্টার পুলিশ কমিশনার (২০১৩), জীবন নদীর তীরে (২০১৩), তোমার মাঝে আমি (২০১৩), ঢাকা টু বোম্বে (২০১৩), ভালোবাসা জিন্দাবাদ (২০১৩), এক জবান (২০১০), আমার স্বপ্ন আমার সংসার (২০১০), মন বসে না পড়ার টেবিলে (২০০৯), বধূবরণ (২০০৮), ময়দান (২০০৭), আমার প্রাণের স্বামী (২০০৭), আনন্দ অশ্রু (১৯৯৭), প্রিয়জন (১৯৯৬), সুজন সখি (১৯৯৪)।

advertisement
Evaly
advertisement