advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

অনিশ্চয়তা কাটছে না শ্রীলংকা সফরের

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২২:৫১
advertisement

চলতি মাসের ২৭ তারিখে শ্রীলংকা সফরে যাওয়ার কথা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। আগামী অক্টোবরের শেষের দিকে আইসিসি বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচের দ্বিপক্ষীয় টেস্ট সিরিজ খেলার সম্ভাব্য সূচি রয়েছে বাংলাদেশের সামনে। এ সফরকে কেন্দ্র করেই করোনাপরবর্তী ক্রিকেটে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছেন টাইগাররা। ঘরের মাঠে নিজেদের প্রস্তুত করার পর শ্রীলংকায় গিয়ে প্রায় এক মাসের একটি প্রস্তুতি ক্যাম্প করার পরিকল্পনা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি)। কিন্তু বিপত্তি বেধেছে অন্য জায়গায়। শ্রীলংকা সফরের জন্য বাংলাদেশকে দেওয়া হয়েছে কঠিন সব শর্ত। শ্রীলংকার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশানা মোতাবেক বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। যে হোটেলে উঠবেন ক্রিকেটাররা- সেই হোটেল কক্ষ থেকে বের হতে পারবেন না তারা। হোটেল কক্ষেই অবস্থান করতে হবে তাদের। খাবারের জন্যও নাকি কক্ষের বাইরে যাওয়া যাবে না! মেডিক্যাল টিম নেওয়া যাবে না। শ্রীলংকার পক্ষ থেকে মেডিক্যাল সাপোর্টও দেওয়া হবে না! দলের সঙ্গে নেট বোলার নেওয়া যাবে না! এমন সব অবাস্তব শর্ত জুড়ে দেওয়ায় বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সাফ জানিয়ে দিয়েছেন যে এ শর্ত মেনে শ্রীলংকা সফরে যাবে না বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। শ্রীলংকা যদি শর্ত শিথিল করে তা হলে সফর হতে পারে। ক্রিকেটারদের ৭ দিনের কোয়ারেন্টিনের কথা বলেছে বিসিবি। এ ছাড়া শর্ত শিথিল করতে হবে আরও। বিসিবি সভাপতির বক্তব্যের পর বাংলাদেশের শ্রীলংকা সফর নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দেয়। তবে বাংলাদেশকে জুড়ে দেওয়া কঠিন শর্ত পুনর্বিবেচনার জন্য লংকান ক্রিকেট বোর্ডকে নির্দেশনা দিয়েছেন শ্রীলংকার ক্রীড়ামন্ত্রী নমল রাজাপাকসে। টুইটারে তিনি বলেছেন, করোনা ভাইরাস মহামারী প্রতিরোধের অগ্রাধিকার সবার আগে। তবে ক্রিকেটকেও গুরুত্ব দিতে হবে। বিসিবির বিষয়টি পুনর্বিবেচনার জন্য কোভিড-১৯ টাস্কফোর্সের সঙ্গে আলোচনা করার জন্য শ্রীলংকা ক্রিকেট বোর্ডকে নির্দেশানা দেয়। শ্রীলংকা ক্রিকেট বোর্ডও বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করছে তাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে। টাইগারদের কোয়ারেন্টিন ১৪ দিনের পরিবর্তে ৭ দিন করার জন্য। এ ছাড়া অন্যান্য যে শর্ত দেওয়া হয়েছে তা শিথিল করার বিষয়েও। শ্রীলংকান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান লংকান সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, বাংলাদেশ যে ৭ দিনের কোয়ারেন্টিনের কথা বলছে, সেটি তিনি জানেন না। তিনি বলেছেন, বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। আরেক সূত্রে জানা যায়, শ্রীলংকা ক্রিকেট বোর্ডের কর্তারা আশা করছেন, তাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় শর্ত শিথিল করবে। কোয়ারেন্টিনের মেয়াদ কমানোর পাশাপাশি যাতে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা অনুশীলনও করতে পারেন- এমন নমনীয় হলে সফর হতে পারে ঠিক সময়ে। ইংল্যান্ডে অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ যেভাবে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলেছে- তাদের প্রটোকল অনুসরণ করে শ্রীলংকার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় নির্দেশিকা দেবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। এদিকে শ্রীলংকার কাছে বাংলাদেশ সফর বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে আরেকটি কারণে। সেটি হলো বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ বাতিল হয়ে গেলে চলতি বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে দূরে থাকতে পারে শ্রীলংকা। কেননা চলতি বছর শ্রীলংকা সফরে আসার কথা দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল। কিন্তু তাদের ক্রিকেটের দায়িত্ব নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা অলিম্পিক কমিটি। এ জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে শ্রীলংকা সফর অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে।

advertisement
Evaly
advertisement