advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

তিন ফরম্যাটে খেলতেই বোলিং অ্যাকশনের পরিবর্তন তাইজুলের

ক্রীড়া প্রতিবেদক
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০০:০০ | আপডেট: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২২:৫১
advertisement

বাংলাদেশের শ্রীলংকা সফর ঘিরে অনিশ্চয়তা তৈরি হলেও টাইগারদের অনুশীলনে তা প্রভাব পড়ছে না। নিয়মিত সূচিমাফিক অনুশীলন করে যাচ্ছেন ক্রিকেটাররা। গতকাল মিরপুরে মুশফিক, তামিম, মাহমুদউল্লাহ, মুমিনুল, ইমরুল, লিটন, সৌম্য, মিরাজ, তাইজুল, সোহানরা অনুশীলনে ঘাম ঝরিয়েছেন। খেলার জন্য নিজেদের চূড়ান্তভাবে প্রস্তুত করছেন তারা। তবে নিজেকে একটু অন্যভাবে প্রস্তুত করছেন তাইজুল ইসলাম। তিনি বোলিং অ্যাকশনে পরিবর্তন এনেছেন। তিন ফরম্যাটে ক্রিকেট খেলার জন্য নতুন বোলিং অ্যাকশনে নিয়মিত অনুশীলন করছেন এই স্পিনার। তিনি জানালেন, এরই মধ্যে নতুন অ্যাকশনে ব্যাটসম্যানদের বোলিং করছেন। তাতে ফলও পাচ্ছেন।

করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন ঘরবন্দি ছিলেন ক্রিকেটাররা। মাঠের বাইরে থাকার সময়টা খুবই কঠিন কেটেছে তাদের। তাইজুল বলেন, ‘আমরা তিন-চার মাস প্র্যাকটিস করতে পারিনি। যেটুকু করছি জিম বলেন, অন্যান্য যা বলেন। তিন-চার মাস পর মাঠে ফিরে আসাটা কঠিন হয়ে যায় সব কিছুতেই। যে সকল সুযোগসুবিধা ক্রিকেট বোর্ড আমাদেরকে করে দিয়েছে। আমরা এখানে দুই মাসের মতো প্র্যাকটিস করলাম। বোলাররা বোলিং নিয়ে, ব্যাটসম্যান ব্যাটিং নিয়ে কাজ করেছেন।’ তাইজুল কাজ করছেন নিজের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে। তিনি বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে আমি বোলিং নিয়ে কাজ করেছি। ভেট্টরির (স্পিন বোলিং কোচ) সঙ্গে কথাও বলেছি যে অ্যাকশনের বিষয়ে। মাঝে আমি আবার অ্যাকশনও পরিবর্তন করেছি। অ্যাকশন নিয়ে কাজ করেছি ব্যাটিংয়ে। ব্যাটসম্যানদের এখন বলও করছি। আশা করি, শরীরের সঙ্গে অ্যাকশন মানিয়েছে। এখন আমার দুই ঘণ্টা বোলিং করতেও কোনো সমস্যা হচ্ছে না।’ তিনি আরও বলেন, ‘এখানে ব্যক্তিগতভাবে কিছু প্র্যাকটিস ছিল। প্রত্যেক প্লেয়ারকে এক ঘণ্টা-দুই ঘণ্টা করে সেশন ছিল। ব্যক্তিগতভাবে সেশন করাতে আমাদের সুবিধা হয়েছে যে আমরা যার যার কাজগুলো নিজের মতো করে করতে পারছি। কনফিডেন্স লেভেল বলতে গেলে এখন ব্যাটসম্যানদের বোলিং করা শুরু করেছি। গত দুই সপ্তাহ ধরে। কনফিডেন্স আস্তে আস্তে বাড়ছে। আরও কিছু দিন গেলে কনফিডেন্স আরও বাড়বে।’

আগে তাইজুলের যে বোলিং অ্যাকশন ছিল তা হলো- জায়গায় জায়গায় বোলিং করাটা। এটা তার কাছে সুবিধাজনক ছিল। কিন্তু এ বোলিং অ্যাকশনে তিন ফরম্যাটের ক্রিকেট খেলা কঠিন। তাই বাধ্য হয়ে বোলিং অ্যাকশনের পরিবর্তন আনতে হয়েছে। তাইজুল বলেন, ‘আসলে আমার যে আগের অ্যাকশন ছিল, জায়গায় জায়গায় বল করাটা অনেক সুবিধা ছিল। কিন্তু ওই অ্যাকশনে তিন ফরম্যাটে কন্টিনিউ করাটা কঠিন ছিল। ভেরিয়েশন কম ছিল। এখন নতুন অ্যাকশন নিয়ে ভেট্টরির সঙ্গে কথা বলেছি। সে বলছে যে তুমি একই রকম বল কর হয়তো প্রত্যেকটা ফরম্যাটেই খেলতে পারবো। যার জন্য বিভিন্ন দিক চিন্তা করে, বাউন্সের দিক চিন্তা করে বা বল ওভার স্পিনের চিন্তা করে বা বিভিন্ন ভেরিয়েশনের কথা চিন্তা করে অ্যাকশন পরিবর্তন করা। এরই মধ্যে আমি ফলাফলও পাচ্ছি ব্যাটসম্যানদের বল করে। ভেরিয়েশন হচ্ছে নতুন অ্যাকশনে।’ অনেক দিন খেলার বাইরে থাকাটা কঠিন খেলোয়াড়দের জন্য। তাইজুল বলেন, ‘আমরা সব সময় খেলতে পছন্দ করি। আমাদের সামনে শ্রীলংকা সিরিজ আছে। এটা হওয়াটাও খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তা হলে হয়তো আমরা খেলোয়াড়রা সবাই মাঠে ফিরতে পারব। আমরা যেন আগের অবস্থায় ফিরে আসতে পারলে অনেক ভালো লাগবে।’

advertisement
Evaly
advertisement