advertisement
advertisement
advertisement
advertisement
advertisement

মিয়ানমারের কাছেই রয়েছে রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান : ফাতিমা

কৌশলী ইমা,নিউইয়র্ক
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৬:১২ | আপডেট: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৬:১২
জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৫তম অধিবেশন উপলক্ষে এই ইভেন্টের আয়োজন করা হয়। ছবি : সংগৃহীত
advertisement

চলমান রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান মিয়ানমারের কাছেই রয়েছে বলে মনে করছেন জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা। ‘রোহিঙ্গা সমস্যার সাম্প্রতিক চার বছর : টেকসই সমাধান নিশ্চিতের চ্যালেঞ্জসমূহ’ শীর্ষক এক ভার্চ্যুয়াল সাইড ইভেন্টে দেওয়া বক্তব্যে গতকাল বুধবার এ কথা বলেন তিনি।

রাবাব ফাতিমা বলেন, ‘রোহিঙ্গা সংকটে প্রয়োজন রাজনৈতিক সমাধান, যা রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনের মধ্যেই নিহিত রয়েছে। আর এ প্রত্যাবাসনের ক্ষেত্রে সমস্যার মূল কারণগুলোকে চিহ্নিত করে তা নিষ্পত্তি, যথোপযুক্ত পরিবেশ তৈরি এবং দায়ীদের জবাবদিহিতার আওতায় আনার মতো বিষয়গুলো নিশ্চিত করতে হবে।’

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৫তম অধিবেশন উপলক্ষে বাংলাদেশ, কানাডা, সৌদি আরব ও তুরস্ক ইভেন্টটির আয়োজন করে। ইভেন্টটিতে উদ্বোধনী বক্তব্য দেন রাবাব ফাতিমা। অনুকূল পরিবেশ তৈরি করতে মিয়ানমারের ব্যর্থতার কারণে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে সৃষ্ট বর্তমান অচলাবস্থার কথা তুলে ধরেন তিনি। রাখাইন রাজ্যের পরিস্থিতি অবনতির বিষয়েও গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি।

এই ইভেন্টটি জাতিসংঘের সদস্য দেশ, জাতিসংঘ সদর দপ্তর ও এর সংস্থা, সিভিল সোসাইটি ও গণমাধ্যমের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা পর্বে মূল বক্তব্য দেন মিয়ানমার বিষয়ক স্বাধীন তদন্ত প্রক্রিয়া’র (আইআইএমএম) প্রধান নিকোলাস কৌমজিয়ান। পর্বটির সঞ্চালক ছিলেন জাতিসংঘে নিযুক্ত কানাডার স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত বব রায়।

ইভেন্টটিতে আরও বক্তব্য দেন গাম্বিয়ার বিচার মন্ত্রণালয়ের আইন উপদেষ্টা হুসেইন থামাসি, সংঘাতকালে যৌন সহিংসতা বিষয়ক জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ প্রতিনিধি মিজ্ প্রমিলা প্যাটেন, নিউইয়র্কে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাই কমিশনারের পরিচালক মিজ্ রুভেন মেনিক দিওলা, ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিজে গাম্বিয়া ও মিয়ানমারের মধ্যকার মামলার গাম্বিয়া পক্ষের আইন উপদেষ্টা ড. পায়াম আখওয়ান, গ্লোবাল সেন্টার ফর রেসপনসিবিলিটি টু প্রটেক্ট’র নির্বাহী পরিচালক ড. সাইমন অ্যাডামস্, গ্লোবাল জাস্টিজ সেন্টারের প্রেসিডেন্ট মিজ্ আকিলা রাধা কৃষ্ণান, আরাকান রোহিঙ্গা ইউনিয়নের মহাপরিচালক ড. ওয়াকার উদ্দিন। এ ছাড়া জাতিসংঘে নিযুক্ত সৌদি আরব, তুরস্ক, সুইডেন, যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র, নেদারল্যান্ডস্ ও ইন্দোনেশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধিরা বক্তব্য দেন।

advertisement
Evaly
advertisement